ঢাকা, বুধবার, ৬ কার্তিক ১৪২৭, ২১ অক্টোবর ২০২০, ০৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

জাতীয়

শিবচরে পদ্মায় বিলীন হলো ইউপি ভবনের অর্ধেক 

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৫১ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২১, ২০২০
শিবচরে পদ্মায় বিলীন হলো ইউপি ভবনের অর্ধেক  শিবচরে পদ্মায় বিলীন হলো ইউপি ভবনের অর্ধেক, ছবি: বাংলানিউজ

মাদারীপুর: মাদারীপুর জেলার শিবচর উপজেলার বন্দরখোলা ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) ভবনটির অর্ধেকটা পদ্মায় বিলীন হয়ে গেছে। হুমকিতে রয়েছে বাকিটুকুও।

রোববার (২০ সেপ্টেম্বর) দিনগত রাতে ভবনটির অর্ধেক নদীগর্ভে চলে যায়।  

এছাড়া ইউনিয়ন পরিষদ ভবনটির পাশের একটি কমিউনিটি ক্লিনিকও নদী ভাঙনের মুখে পড়েছে। এর আগে ওই এলাকার একটি তিনতলা বিশিষ্ট মাধ্যমিক বিদ্যালয়, একটি প্রাথমিক বিদ্যালয় নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। এছাড়া ভাঙনের মুখে রয়েছে ইউনিয়নটির কাজীরসুরা বাজার। এর আগে চলতি বর্ষা মৌসুমে ওই এলাকার শতাধিক পরিবার ভাঙনের শিকার হয়েছে।

জানা গেছে, বন্দরখোলা ইউনিয়নের কাজীরসুরা এলাকাটি পদ্মার কোল ঘেঁষা। বহু বছর আগে গড়ে ওঠা বিস্তীর্ণ এ জনপদে গত কয়েক বছর ধরে পদ্মার ভাঙন তীব্রতর হয়েছে। বর্ষা মৌসুমের শুরু এবং শেষের দিকে এসে ভাঙন ভয়াবহ আকার ধারণ করতে থাকে। এ বছর বর্ষার শুরুতেই নদী ভাঙন শুরু হলে ভিটেমাটি হারা হয় অসংখ্য পরিবার। ভাঙনের ফলে বসতভিটা হারিয়ে ভূমিহীন হয়ে পড়েছেন কাজীরসুরা ও এর আশপাশের এলাকার সাধারণ মানুষ। এছাড়াও একটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়, একটি প্রাথমিক বিদ্যালয় কাম আশ্রয়কেন্দ্র, মসজিদ, কমিউনিটি ক্লিনিক পদ্মার ভাঙনে বিলীন হয়ে গেছে। জিও ব্যাগ ফেলে পানি উন্নয়ন বোর্ড ভাঙন ঠেকানোর চেষ্টা করলেও স্রোতের তীব্রতার কারণে সেই প্রচেষ্টা সফল হয়নি।

স্থানীয়রা জানান, চলতি বছর বন্যায় কাজীরসুরা এলাকায় ব্যাপক ভাঙন দেখা দিয়েছে। বসতবাড়ি, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পুরোপুরি নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। কাজীরসুরা বাজারের অর্ধ শতাধিক দোকানপাট বর্তমানে হুমকির মুখে রয়েছে।

বন্দরখোলা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. নিজাম বেপারী বলেন, গত রাতে ইউনিয়ন পরিষদ ভবনটির অর্ধেক ভেঙে নদীতে চলে গেছে। পদ্মার ভাঙনে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ নানা স্থাপনা, বসতবাড়ি বিলীন হয়ে গেছে, যাচ্ছে। নদী ভাঙনের শিকার মানুষের কষ্টের শেষ নেই।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৪৪ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২১, ২০২০
এসআই

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa