ঢাকা, শুক্রবার, ১২ বৈশাখ ১৪২৬, ২৬ এপ্রিল ২০১৯
bangla news
বিডিআর বিদ্রোহ

অভিযোগ পাঠ শেষ, শনিবার সাক্ষ্য

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১০-০৬-২২ ৫:৪৫:৫৮ পিএম

বিডিআর বিদ্রোহের ঘটনায় ২৪ রাইফেলস ব্যাটালিয়নের অভিযুক্ত ৬৬৭ জন জওয়ানের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ পাঠ করা হয়েছে। আজ বুধবার দুপুর দু’টায় বিচার কাজ শেষ হয়। আগামী শনিবার সকাল নয়টায় সাক্ষ্য গ্রহণ ও চার্জ গঠন প্রক্রিয়া শুরু হবে।

ঢাকা: বিডিআর বিদ্রোহের ঘটনায় ২৪ রাইফেলস ব্যাটালিয়নের অভিযুক্ত ৬৬৭ জন জওয়ানের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ পাঠ করা হয়েছে। আজ বুধবার দুপুর দু’টায় বিচারকাজ শেষ হয়। আগামী শনিবার সকাল নয়টায় সাক্ষ্য গ্রহণ ও অভিযোগ গঠন প্রক্রিয়া শুরু হবে।

চতুর্থ দিনে আজ ২৯২ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ পাঠ করা হয়েছে।

এর আগে সকাল সাড়ে নয়টার দিকে বিডিআরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল রফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে আদালতের কার্যক্রম শুরু হয়। ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক কৌঁসুলি লেফটেন্যান্ট কর্নেল শামসুর রহমান আসামিদের বিরুদ্ধে বিদ্রোহে অংশগ্রহণ ও সহায়তার অভিযোগ আদালতকে পড়ে শোনান।

বিচারকাজ শুরুর প্রথম দিন গত রোববার ৪০, সোমবার দ্বিতীয় দিনে ১৪৩ এবং মঙ্গলবার তৃতীয় দিনে ১৯২ জনের অভিযোগপত্র পাঠ করা হয়।

কৌঁসুলি শামসুর রহমান আসামিদের বিরুদ্ধে বেশ কিছু অভিযোগ আনেন। এসবের মধ্যে আছে মহাপরিচালকের নির্দেশ অমান্য করে এবং বিদ্রোহ দমনে ভূমিকা পালন না করে দরবার হল ত্যাগ, অস্ত্রভাণ্ডার লুট, ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের লাঞ্ছিত করা, বৈঠক করে অন্যদের উসকে দেওয়া, সাংবাদিকদের মিথ্যা তথ্য দেওয়া, সৈনিক লাইনের সামনে গিয়ে মাইক নিয়ে হুমকি দিয়ে নিরীহ সৈনিকদের বিদ্রোহে অংশ নিতে বাধ্য করা, অস্ত্র-গুলি ও মূল্যবান সামগ্রী লুট ও গুলি করা, কর্তৃপকে বিদ্রোহের আগাম তথ্য না দেওয়া, বিচারের সময় আদালতকে ভুল তথ্য দিয়ে বিভ্রান্ত করা, গাড়িতে অগ্নিসংযোগে সহায়তা।

ব্যাটালিয়নের সুবেদার মতিউর রহমান ৬৬৮ জনকে আসামি করে এ মামলাটি করেন। ৩১ মার্চ মামলার বিচারকাজ শুরু হয়। এর মধ্যে গত ১৪ মে আসামি জয়নাল আবেদীন ভূঁইয়া হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান। বাকিরা ঢাকা কেন্দ্রীয় ও কাশিমপুর কারাগারে বন্দি আছেন।

বাংলাদেশ সময় : ১৪২৫ ঘণ্টা, জুন ২৩, ২০১০
এমজেড/এমএইচকিউ/বিকে/জেএম

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14