ঢাকা, বুধবার, ৮ আশ্বিন ১৪২৭, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৪ সফর ১৪৪২

জাতীয়

দুর্নীতির বিরুদ্ধে বঙ্গবন্ধুর ছিল দৃঢ় অবস্থান: ইফতেখারুজ্জামান

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০০৯ ঘণ্টা, আগস্ট ১৪, ২০২০
দুর্নীতির বিরুদ্ধে বঙ্গবন্ধুর ছিল দৃঢ় অবস্থান: ইফতেখারুজ্জামান টিআইবির নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান

ঢাকা: ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের (টিআইবি) নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তার সোনার বাংলার স্বপ্নে যে বিষয়গুলো বিশেষভাবে লালন করেছিলেন তার মধ্যে অন্যতম ছিল দুর্নীতির বিরুদ্ধে তার দৃঢ় অবস্থান।

টিআইবির অফিসিয়াল চ্যানেলে শুক্রবার (১৪ আগস্ট) সন্ধ্যায় এক ভিডিও বিবৃতিতে তিনি এসব কথা বলেন।

ড. ইফতেখারুজ্জামান বলেন, বঙ্গবন্ধু একটি দুর্নীতিমুক্ত বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখেছিলেন। তার সোনার বাংলা আর দুর্নীতিমুক্ত বাংলা এক সূত্রে গাঁথা। দুর্নীতি, ক্ষমতার অপব্যবহার, জালিয়াতি, কালোবাজারি, অর্থপাচার; এই ধরনের অপরাধগুলো সম্পর্কে জাতির পিতা সবসময় অত্যন্ত সোচ্চার ছিলেন। তিনি সুযোগ পেলেই দেশবাসীকে এ বিষয়গুলো নিয়ে উদ্বুদ্ধ করতেন। তার সহকর্মীদের উদ্বুদ্ধ করতেন।

তিনি বলেন, দেশ থেকে দুর্নীতিবাজদের উৎখাত করতে হবে, জোরালো ভাষায় ঘোষণা দিয়েছেন। এরই ধারাবাহিকতায় ১৯৭৫ সালে স্বাধীনতা দিবসের একটি ভাষণে বঙ্গবন্ধু ঘোষণা করেছিলেন— ৭১-এ আমি ঘোষণা করেছিলাম পাকিস্তানিদের বিরুদ্ধে প্রত্যেক ঘরে ঘরে দূর্গ গড়ে তুলতে হবে। আজ ৭৫ সনে আমি আহ্বান জানাই দুর্নীতির বিরুদ্ধে প্রত্যেক ঘরে ঘরে দূর্গ গড়ে তুলতে হবে। তিনি বলেছিলেন, আমি আইন করব, কাউকে ছাড় দেব না। এও বলেছিলেন, আমি একা পারব না, দেশের প্রতিটি মানুষকে এগিয়ে আসতে হবে দুর্নীতিবাজদের উৎখাত করার জন্য। এগিয়ে আসতে হবে দুর্নীতির বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলনের জন্য।

টিআইবির নির্বাহী পরিচালক বলেন, জাতির পিতা জোরালো ভাষায় পরিষ্কারভাবে বলেছিলেন সামাজিক আন্দোলনের কথা। আরো বলেছিলেন, সামিজিক আন্দোলন কে করবে বাংলাদেশে? তিনি বলেছিলেন, করতে পারে বুদ্ধিজীবী, শ্রমজীবী, পেশাজীবী—দেশের প্রতিটি মানুষ। আর পারে দেশের ছাত্র সমাজ, তরুণ সমাজ। তারুণ্য, ছাত্র সমাজের প্রতি চিরজীবনের আস্থা এবং নিজে তারুণ্যের বলে বলীয়ান এই মহান নেতা আহ্বান জানিয়েছিলেন দুর্নীতির বিরুদ্ধে তরুণ সমাজকে নেতৃত্বগ্রহণ করার জন্য।

ড. ইফতেখারুজ্জামান আরও বলেন, আজকে মুজিবর্ষ উদযাপনের অংশ হিসেবে যদি সত্যিকার অর্থেই বঙ্গবন্ধু জাতির পিতার প্রতির প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে চাই, তাহলে এ দেশের প্রতিটি মানুষকে দুর্নীতির বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে। তার পরিবেশ সৃষ্টি করার দায়িত্ব রাষ্ট্রের, সরকারের।

রাষ্ট্রীয় কাঠামো, সরকারি কাঠামো, প্রশাসনে, আইন প্রয়োগকারী সংস্থায় প্রতিটি প্রতিষ্ঠানে বিচারিক অঙ্গনে; প্রতিটি পর্যায়ে দুর্নীতি বিরোধী চেতনা, দুর্নীতি বিরোধী কার্যক্রম মূল ধারায় অন্তর্ভুক্ত করতে হবে। তার সহায়ক হিসেবে গড়ে তুলতে হবে দুর্নীতি বিরোধী সামাজিক আন্দোলন। আর তরুণ সমাজ এই আন্দোলনের নেতৃত্ব দেবে।

ড. ইফতেখারুজ্জামান বলেন, আজকে দুর্নীতি বিরোধী সামাজিক আন্দোলনের আহ্বান জানাই মনের মধ্যে দ্বিধা-দ্বন্দ্ব নিয়ে, একটা অপরাধবোধ নিয়ে। তার কারণ হচ্ছে আমার প্রজন্ম আমরা পারিনি এমন একটা বাংলাদেশ গড়তে, যেখানে দুর্নীতির কোনো স্থান নেই। আমাদের ব্যর্থতার দায় বর্তমান প্রজন্মের তরুণদের হাতে দিচ্ছি এই বিশ্বাস নিয়ে যে, তারা জানে বাংলাদেশের যত ইতিবাচক অর্জন—রাজনৈতিক হোক, সামাজিক হোক, অর্থনৈতিক হোক, প্রতিটি পর্যায়ে, বৃটিশ বিরোধী আন্দোলন হোক, ভাষা আন্দোলন, উনসত্তরের গণআন্দোলন হোক, মুক্তিযুদ্ধ হোক, মুক্তিযুদ্ধের পরবর্তীতে স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলন হোক, প্রতিটি পর্যায়ে তরুণ সমাজ নেতৃত্ব দিয়েছে।

তিনি বলেন, আজকে দুর্নীতির বিরুদ্ধে নেতৃত্ব দিতেও তারা প্রস্তুত। কিন্তু তাদের এই নেতৃত্বের পরিবেশটা সৃষ্টি করতে হবে আমাদের, আমাদের সরকারকে, আমাদের রাষ্ট্রকে। দুর্নীতির কথা বললে, দুর্নীতির বিরুদ্ধে মত প্রকাশ করলে, তথ্য প্রকাশ করলে কাউকে মামলা-হামলা করা যাবে না। কাউকে শত্রু ভাবা যাবে না। যারা দুর্নীতির বিরুদ্ধে কথা বলবে তরুণ সমাজ, তারা সরকারের সহায়ক শক্তি।

বাক স্বাধীনতা, মত প্রকাশের স্বাধীনতাকে খর্ব করে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা অর্জিত হবে, এ কথা আমরা দুঃস্বপ্নেও ভাবতে পারি না। বঙ্গবন্ধু তার ব্যক্তিগত জীবনে, তার রাজনৈতিক জীবনে কখনো সেটি কল্পনাও করতে পারেননি। কাজেই আমাদের পরিবেশটা সৃষ্টি করতে হবে, যাতে করে তরুণ সমাজ তথা সাধারণ মানুষ দুর্নীতির বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলনে ঝাঁপিয়ে পড়তে পারে। পরিবেশ সৃষ্টি করা রাষ্ট্রের দায়িত্ব, সরকারে দায়িত্ব। এটা যদি সম্ভব হয় তবেই সত্যিকার অর্থে বঙ্গবন্ধুর প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করা হবে, যোগ করেন ড. ইফতেখারুজ্জামান।

বাংলাদেশ সময়: ২০০২ ঘণ্টা, আগস্ট ১৪, ২০২০
ইইউডি/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa