ঢাকা, শনিবার, ৩ আশ্বিন ১৪২৭, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০০ সফর ১৪৪২

জাতীয়

মানবপাচারকারী চক্রের এক সদস্য গ্রেফতার

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০৩৮ ঘণ্টা, আগস্ট ১১, ২০২০
মানবপাচারকারী চক্রের এক সদস্য গ্রেফতার মানবপাচারকারী চক্রের গ্রেফতার সদস্য

ঢাকা: রাজধানীর শাহজাহানপুর এলাকা থেকে মানবপাচারকারী চক্রের এক সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব-৩)।

গ্রেফতার মো. মাহফুজুর রহমান (৫০) দীর্ঘদিন যাবত সমুদ্র পথে কানাডা, পোল্যান্ড, জাপান, তিউনিশিয়া ও ইতালিতে মানবপাচার করে আসছিলেন।

মঙ্গলবার (১১ আগস্ট) সন্ধ্যায় র‌্যাব-৩-এর অপারেশন অফিসার সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) ফারজানা হক বাংলানিউজকে এ খবর নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, ভুক্তভোগীদের অভিযোগের ভিত্তিতে সোমবার রাজধানীর শাহজাহানপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে মানবপাচারকারী চক্রের সদস্য মাহফুজুর রহমানকে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় তার হেফাজত থেকে ২৩টি পাসপোর্ট, ২টি মোবাইল ফোন, ২০০ কপি মানবপাচারের দালিলিক প্রমাণপত্র, ৫টি পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট জব্দ করা হয়।

র‌্যাবের এই কর্মকর্তা আরও জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামি মাহফুজুর জানান ভারতে অবস্থানরত মানবপাচারকারী চক্রের এক দালাল শামিম আহমেদের সঙ্গে তিনি যোগাযোগ করে দীর্ঘদিন যাবত বিদেশে অবৈধ পথে লোক পাচার করতেন। বিভিন্ন প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে ভুক্তভোগীদের প্রথমে দিল্লি, সেখান থেকে দুবাই পাঠাতেন। দুবাই থেকে আলজেরিয়া ও মরক্কো হয়ে সাগর পথে নৌকায় অবৈধভাবে মানবপাচার করে আসছিলেন।

এএসপি ফারজানা হক জানান, চক্রের সদস্যরা ভুয়া ওয়ার্ক পারমিট, ভুয়া ভিসা দিয়ে কানাডা, পোল্যান্ড, জাপান, তিউনিসিয়া ও ইতালি পাঠাবেন বলে প্রথমে ভুক্তভোগীদের বিশ্বাস অর্জন করতেন। এরপর গমনেচ্ছুক ভুক্তভোগীদের কাছ থেকে জনপ্রতি ধাপে ধাপে ৬-১৪ লাখ টাকা পর্যন্ত আদায় করতেন। এভাবে অসংখ্য ভুক্তভোগীর কাছ থেকে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন প্রতারক মাহাফুজুর। র‌্যাবের কাছে অভিযোগকারী চার ভুক্তভোগীর কাছ থেকে ২৪ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে বলে তথ্য রয়েছে।

র‌্যাব কর্মকর্তা বলেন, চক্রের গ্রেফতার সদস্য মাহফুজুর রহমান লক্ষ্মীপুর জেলার চন্দ্রগঞ্জ থানার জমিরতলী গ্রামের মৃত তরিকুল্যার ছেলে। বর্তমানে রাজধানীর ২৫০/এ উত্তর শাহজাহানপুর এলাকায় বসবাস করেন। তার বিরুদ্ধে ডিএমপির বনানী ও উত্তরা পূর্ব থানায় পৃথক ২টি মামলা রয়েছে বলেও আমরা তথ্য পেয়েছি। আসামির বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ২০৩৬ ঘণ্টা, আগস্ট ১১, ২০২০
এসজেএ/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa