ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৪ আশ্বিন ১৪২৭, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১০ সফর ১৪৪২

জাতীয়

কারা অধিদপ্তরকে করোনা সুরক্ষা সামগ্রী দিল যুক্তরাষ্ট্র

ডিপ্লোম্যাটিক করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৬১০ ঘণ্টা, আগস্ট ১১, ২০২০
কারা অধিদপ্তরকে করোনা সুরক্ষা সামগ্রী দিল যুক্তরাষ্ট্র সুরক্ষা সামগ্রী দিল যুক্তরাষ্ট্র/ ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা: বাংলাদেশে নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত আর্ল মিলার এবং তার দল কোভিড-১৯ মোকাবিলা প্রচেষ্টায় যুক্তরাষ্ট্রের অব্যাহত সহায়তার অংশ হিসেবে কারা মহাপরিদর্শক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ কে এম মোস্তফা কামাল পাশার কাছে ব্যক্তিগত সুরক্ষা সরঞ্জাম (পিপিই) হস্তান্তর করেন। যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে বাংলাদেশে ধারাবাহিক পিপিই বিতরণ পরিকল্পনার ষষ্ঠ উদ্যোগ এটি।

 

বাংলাদেশে কোভিড-১৯ মোকাবিলায় এ পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্র সরকার যুক্তরাষ্ট্রের ডিপার্টমেন্ট অব স্টেট, ডিফেন্স অ্যান্ড এগ্রিকালচার, ইউএসএআইডি, এবং সেন্টারস ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশনসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে ৫৬ দশমিক ৫ মিলিয়ন ডলারের অধিক সহায়তা প্রদান করেছে।  

সোমবার ( ১০ আগস্ট) ঢাকার যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাস এক বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানায়।

যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাস প্রদত্ত সরঞ্জামাদির মধ্যে রয়েছে কাপড়ের তৈরি ১০ হাজার পুনর্ব্যবহারযোগ্য মাস্ক, বিপজ্জনক পদার্থ ব্যবস্থাপনায় ব্যবহৃত ২০০ পূর্ণাঙ্গ হ্যাজার্ডাস ম্যাটেরিয়াল স্যুট, ৫০টি কেএন৯৫ সার্জিক্যাল মাস্ক, ৬৬০ বোতল ২০০-মিলি হ্যান্ড স্যানিটাইজার, ১১ হাজার জোড়া সার্জিক্যাল গ্লাভস, ২৫ কেজি ব্লিচ পাউডার, ২টি জীবাণুনাশক স্প্রেয়ার, ১০০টি মুখমণ্ডল সুরক্ষার শিল্ড, এবং ১০টি ইনফ্রারেড থার্মোমিটার- যার সবই বাংলাদেশি বিভিন্ন কোম্পানির কাছ থেকে স্থানীয়ভাবে ক্রয় করা হয়েছে।

কোভিড-১৯ থেকে নাজুক জনগোষ্ঠীর সুরক্ষা এবং বাংলাদেশে কোভিড-১৯ মোকাবিলায় বাংলাদেশ কারা অধিদপ্তর গুরুত্বপূর্ণ অংশীদার। কেননা প্রতিষ্ঠানটি জনসাধারণকে এবং সারাদেশে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন উদ্যোগে সহায়তা দিয়ে আসছে। এই পিপিইগুলো পাওয়ার ফলে সংশোধন কর্মকর্তারা বাংলাদেশের সকল মানুষের সুরক্ষা ও নিরাপত্তা উৎসাহিত করার পাশাপাশি নিজেদের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে পারবেন।

ঢাকার যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাস বাংলাদেশ কারা অধিদপ্তরের সংশোধন কর্মকর্তা এবং সারাদেশের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের কর্মীদের মধ্যে এই অত্যাবশ্যকীয় ব্যক্তিগত সুরক্ষা সরঞ্জাম (পিপিই) প্রদান করে গর্বিত বোধ করছে। এই অনুদান বাংলাদেশ শুল্ক বিভাগ, কমলাপুর রেলওয়ে জেনারেল হাসপাতাল, ইউএসএআইডির খাদ্য নিরাপত্তা কার্যক্রম, সশস্ত্র বাহিনী বিভাগ, বাংলাদেশ পুলিশ সদর দপ্তর এবং বাংলাদেশের ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের কর্মকর্তাদের জন্য যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের সাম্প্রতিক অনুদানের ধারাবাহিকতা। এই মহামারি মোকাবিলা এবং দুদেশের মধ্যে বিদ্যমান গভীর সম্পর্ককে আরও জোরদার করতে বাংলাদেশের পাশে থেকে অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে কাজ করার জন্য যুক্তরাষ্ট্র প্রতিশ্রুতিবদ্ধ রয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ০৬০৯ ঘণ্টা, আগস্ট ১১, ২০২০ 
টিআর/এইচএডি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa