ঢাকা, সোমবার, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ৩০ নভেম্বর ২০২০, ১৩ রবিউস সানি ১৪৪২

জাতীয়

ঈদের ১০ দিন আগেই শ্রমিকদের বেতন পরিশোধের দাবি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৪০১ ঘণ্টা, জুলাই ১২, ২০২০
ঈদের ১০ দিন আগেই শ্রমিকদের বেতন পরিশোধের দাবি মানববন্ধন। ছবি: ডিএইচ বাদল

ঢাকা: সব পোশাক কারখানার শ্রমিকদের জুন এবং জুলাই মাসের মজুরি ও বোনাস ঈদুল আজহার ১০ দিন আগে পরিশোধ করতে আহ্বান জানিয়েছে ইন্ডাষ্ট্রিঅল গ্লোবাল ইউনিয়নের অন্তর্ভুক্ত ২০টি ট্রেড ইউনিয়ন ফেডারেশন।

রোববার (১২ জুলাই) দুপুরে রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অনুষ্ঠিত এক মানববন্ধন থেকে তারা এই দাবি করেন।

মানববন্ধনের আয়োজন করে বাংলাদেশের গার্মেন্টস সেক্টরের প্রতিনিধিত্বশীল সংগঠন ইন্ডাষ্ট্রিঅল বাংলাদেশ কাউন্সিল (আইবিসি)।

মানববন্ধনের সভাপতিত্ব করেন আইবিসির সভাপতি হেদায়েতুল ইসলাম। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক চায়না রহমানের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন বিভিন্ন সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

বক্তারা বলেন, ‘প্রতিবার ঈদ এলে আমাদের দেশের পোশাক কারখানার মালিকরা শ্রমিকদের মজুরি দিতে বিভিন্ন তালবাহানা শুরু করেন। বিভিন্ন অজুহাতে কারখানার মালিকরা ঈদের অন্তিম মুহূর্তে মাসিক মজুরি ও ঈদ বোনাস দেন। এখন প্রায় অনেক কারখানায় এ পর্যন্ত জুন মাসের মজুরি পরিশোধ করেনি।

‘যেহেতু আগামী মাসের ১ বা ২ তারিখে ঈদুল আজহা অনুষ্ঠিত হবে, তখন কারখানার মালিকরা শ্রমিকদের জুনের মজুরি নিয়ে ঘোরাঘুরি করে পরবর্তীতে জুলাই মাসের মজুরি এবং মূল মজুরির সমপরিমান ঈদ বোনাস পরিশোধ করা নিয়ে এক বিভ্রান্তি সৃষ্টি করবেন। আর শ্রমিকরা মজুরি ও ঈদ বোনাস চাইতে গেলে শুরু করবেন শ্রমিক ছাঁটাই করা। ’

বক্তারা বলেন, ‘আমরা ঈদুল আজহার ১০ দিন আগে পোশাক কারখানার শ্রমিকদের জুন ও জুলাই মাসের মজুরি ও মূল মজুরির সমপরিমান ঈদ বোনাস পরিশোধ করার জন্য বিজিএমইএ, সরকার এবং সব কারখানার মালিকদের প্রতি অনুরোধ জানাচ্ছি।

এ সময় গত ঈদে শ্রমিকদের মজুরি ও বোনাস কম পাওয়ার কথা উল্লেখ করে বক্তারা বলেন, ‘করোনার কারণে গত ঈদে শ্রমিকদের মজুরি ও বোনাস কম পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে তারা তাদের পরিবারের সঙ্গেও ঈদ উদযাপন করতে পারেনি। আগামী ঈদুল আজহা যেন শ্রমিকরা তাদের পরিবারের সঙ্গে উদযাপন করতে পারেন, সেদিকে কারখানার মালিকরা দৃষ্টি দেবেন বলে মনে করি।

বাংলাদেশ সময়: ১৩৫২ ঘণ্টা, জুলাই ১২, ২০২০
এইচএমএস/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa