ঢাকা, শুক্রবার, ২৩ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৭ আগস্ট ২০২০, ১৬ জিলহজ ১৪৪১

জাতীয়

মণিরামপুরে একাধিক মামলার আসামিকে গুলি করে হত্যা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮১৩ ঘণ্টা, জুলাই ৯, ২০২০
মণিরামপুরে একাধিক মামলার আসামিকে গুলি করে হত্যা

যশোর: যশোরের মণিরামপুরে দিনে-দুপুরে রফিকুল ইসলাম রফিক (৫৫) নামে এক ব্যক্তিকে গুলি করে ও গলাকেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।

রফিকুল উপজেলার মধুপুর গ্রামের মৃত আমারত আলীর ছেলে। তিনি একসময় নিষিদ্ধ ঘোষিত পূর্ববাংলার কমিউনিস্ট পার্টির আঞ্চলিক কমান্ডার ছিলেন।

পরে তিনি স্বাভাবিক জীবনে ফেরেন।

বৃহস্পতিবার (৯ জুলাই) দুপুর দেড়টার দিকে উপজেলার দিগঙ্গা কুচলিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের পাশে এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে মণিরামপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করেছে। একইসঙ্গে মরদেহের পাশে পড়ে থাকা রফিকুলের ইজিবাইকটিও উদ্ধার করেছে।

স্থানীয় কুচলিয়া এলাকার ইউপি সদস্য প্রণব কুমার বিশ্বাস বাংলানিউজকে বলেন, বৃহস্পতিবার দুপুরে সুন্দলি বাজারে যাত্রী নামিয়ে মণিরামপুরের দিকে যাচ্ছিলেন রফিকুল। দিগঙ্গা-কুচলিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের পাশে ফাঁকা স্থানে পৌঁছালে দুর্বৃত্তরা তাকে গুলি করে ও কুপিয়ে হত্যা করে মরদেহ ও ইজিবাইকটি ফেলে চলে যায়।

তিনি আরও বলেন, একসময় তিনি খুব দুর্ধর্ষ ছিলেন। পরে তিনি স্বাভাবিক জীবনে ফেরেন। গত কয়েক বছর ধরে তিনি ইজিবাইক চালিয়ে সংসার চালাতেন।

মণিরামপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম বলেন, কে বা কারা প্রকাশ্যে রফিককে গুলি করে ও গলাকেটে হত্যা করেছে তা এখনও জানা যায়নি। নিহতের ডান বুকে ও ডান বাহুতে দু’টি গুলির চিহ্ন এবং গলায় ধারালো অস্ত্রের কোপের দাগ রয়েছে। রফিকের নামে থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। তার ইজিবাইকটি উদ্ধার করে হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। এছাড়া ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ উদ্ধার করে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

যশোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিএসবি) মোহাম্মদ তৌহিদুল ইসলাম বলেন, হত্যাকারীদের আটকে এরই মধ্যে কাজ করেছে পুলিশ। হত্যার বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৮০০ ঘণ্টা, জুলাই ০৯, ২০২০
ইউজি/ওএইচ/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa