ঢাকা, বুধবার, ২১ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৫ আগস্ট ২০২০, ১৪ জিলহজ ১৪৪১

জাতীয়

গণপরিবহনে নতুন করে চাঁদাবাজির অভিযোগ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০৭-০৮ ০৩:৫৫:৩৯ পিএম
গণপরিবহনে নতুন করে চাঁদাবাজির অভিযোগ

ঢাকা: করোনাভাইরাসের কারণে দীর্ঘসময় গণপরিবহন বন্ধ থাকার পর সীমিত আকারে চালুর পর আবারও চাঁদাবাজি শুরু হয়েছে বলে দাবি করেছেন জাতীয় সড়ক পরিবহন মোটর শ্রমিক ফেডারেশন সংগঠনের সভাপতি মোস্তাকুর রহমান মোস্তাক এই অভিযোগ করেন।

বুধবার (৮ জুলাই) সকাল সাড়ে ১১টায় রাজধানীর গাবতলী এস এ খালেক প্লাজায় এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

 

মোস্তাকুর রহমান মোস্তাক বলেন, দীর্ঘদিন করোনার কারণে গণপরিবহন বন্ধ ছিল। এর মধ্যে শ্রমিকদের কল্যাণ তহবিলের টাকা আত্মসাৎকারীরা শ্রমিকদের পাশে না থাকায় সাধারণ শ্রমিকরা বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছেন। আবারো সেই পুরনো চাঁদা আত্মসাৎকারীরা কল্যাণের নামে চাঁদার জন্য সড়কে আসছে। সাধারণ শ্রমিকরা প্রতিবাদ করছেন। আমরা আমাদের জাতীয় সড়ক পরিবহন মোটর শ্রমিক ফেডারেশন-এর পক্ষ থেকে সাধারণ শ্রমিক ভাইদের পাশে ছিলাম, আছি এবং ভবিষ্যতেও থাকব।

তিনি বলেন, যে সকল পরিবহন মালিক ও শ্রমিক নেতৃবৃন্দ এই ২৭ বছর যাবৎ নিজস্ব সম্পত্তি মনে করে যা ইচ্ছে তাই করছেন। সাধারণ মালিক ও শ্রমিকদের জিম্মি করে রেখেছে। নিজেদের স্বার্থের জন্য সরকার ও জনগণকে বিভিন্ন সময় ভোগান্তিতে ফেলে দিচ্ছেন। তাই গণপরিবহনে মালিক-শ্রমিক উভয় জায়গায় নতুন নেতৃত্ব আনলে শ্রমিক-মালিকদের ভাগ্যের উন্নয়ন হবে।

চাঁদাবাজি বন্ধের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পরিবহন খাতে সকল চাঁদা বন্ধের ঘোষণা দিয়েছেন। সাথে সাথে যারা চাঁদাবাজি করবেন, সে যেই হোক না কেন, তাদের কঠোর হাতে দমন করার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন। আমাদের পক্ষ থেকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর এই সঠিক সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানাই। ধন্যবাদ জানাই বাংলাদেশ পুলিশের আইজিপি ড. বেনজির আহমেদকে। তিনি প্রধানমন্ত্রীর এই নির্দেশ অক্ষরে অক্ষরে পালন করছেন। প্রশাসনের সকল সংস্থার হস্তক্ষেপে বাংলাদেশের প্রতিটি টার্মিনাল এবং সড়কে একটি সুন্দর পরিবেশ ফিরে আসবে এবং চাঁদামুক্ত নিরাপদ সড়ক হবে।

শ্রমিক আইডি কার্ড ও নিয়োগপত্রের দাবি জানিয়ে এই শ্রমিক নেতা বলেন, সকল শ্রমিকদের শ্রমিক কার্ডসহ অন্যান্য কাগজপত্র দেখিয়ে চালক, সুপারভাইজার, হেলপার, কাউন্টার মাস্টার, ফোরম্যানসহ সংশ্লিষ্ট সকল কর্মচারীদের সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান সরকারি নিয়ম-নীতি অনুযায়ী নিয়োগপত্র বাধ্যতামূলক করার জন্য জোর দাবি জানাই।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৫৫ ঘণ্টা, জুলাই ০৮, ২০২০
এমএমআই/এমকেআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa