ঢাকা, শনিবার, ৩০ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৫ আগস্ট ২০২০, ২৪ জিলহজ ১৪৪১

জাতীয়

পদ্মার পানি আরো বাড়বে, স্থিতিশীল ব্রহ্মপুত্র-যমুনার পানি

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১১০ ঘণ্টা, জুলাই ২, ২০২০
পদ্মার পানি আরো বাড়বে, স্থিতিশীল ব্রহ্মপুত্র-যমুনার পানি

ঢাকা: পদ্মার পানি বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হওয়ায় টাঙ্গাইল, মানিকগঞ্জ, রাজবাড়ী ও ফরিদপুর জেলার বিভিন্ন এলাকা এরই মধ্যে প্লাবিত হয়েছে। এ নদীর পানি আরো বাড়বে।

আর টানা এক সপ্তাহ ধরে বাড়লেও বর্তমানে স্থিতিশীল রয়েছে ব্রহ্মপুত্র-যমুনার পানি।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আরিফুজ্জামান ভূঁইয়া জানিয়েছেন, ব্রহ্মপুত্র ও যমুনার পানি সমতল স্থিতিশীল আছে, যা অব্যাহত থাকতে পারে।

আর গঙ্গা ও পদ্মা নদীর পানির উচ্চতা বৃদ্ধি পাচ্ছে, যা আগামী শনিবার নাগাদ অব্যাহত থাকতে পারে।

অন্যদিকে সুরমা ব্যতীত মেঘনা অববাহিকার প্রধান নদীগুলোর পানির উচ্চতা বিপৎসীমার নিচে নেমে এসেছে। রোববার পর্যন্ত এ প্রবণতা অব্যাহত থাকতে পারে।

ব্রহ্মপুত্র-যমুনার পানির উচ্চতা স্থিতিশীল থাকায় কুড়িগ্রাম, গাইবান্ধা, বগুড়া, জামালপুর ও সিরাজগঞ্জ জেলায় বন্যা পরিস্থিতিও স্থিতিশীল রয়েছে। তবে পদ্মার পানি বাড়ায় টাঙ্গাইল, মানিকগঞ্জ, রাজবাড়ী ও ফরিদপুর জেলায় বন্যা পরিস্থিতির আরো অবনতি হতে পারে।

এদিকে আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, আগামী ২৪ ঘণ্টায় চার বিভাগে ভারি এবং চার বিভাগে হালকা বর্ষণ হবে।

এক পূর্বাভাসে আবহাওয়া অধিদফতর জানিয়েছে, মৌসুমী বায়ুর অক্ষ রাজস্থান, পাঞ্জাব, হরিয়ানা, উত্তর প্রদেশ, বিহার, পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশের উত্তরাঞ্চল হয়ে আসাম পর্যন্ত বিস্তৃত। এর একটি বর্ধিতাংশ উত্তর বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত। আর মৌসুমী বায়ু বাংলাদেশের ওপর মোটামুটি সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরে মাঝারি অবস্থায় বিরাজ করছে।

এ অবস্থায় শুক্রবার সন্ধ্যা পর্যন্ত রংপুর, রাজশাহী, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের অধিকাংশ জায়গায় এবং ঢাকা, খুলনা, চট্টগ্রাম ও বরিশাল বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ী দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি/বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে দেশের উত্তরাঞ্চলের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী থেকে অতি ভারী বর্ষণ হতে পারে।

বৃহস্পতিবার (২ জুলাই) দেশে সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে ডিমলায়, ২৩০ মিলিমিটার। সবচেয়ে বেশি তাপমাত্রা ছিল যশোরে, ৩৬ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

শনিবার নাগাদ বৃষ্টিপাতের বর্তমান প্রবণতা অব্যাহত থাকবে। তবে আগামী সপ্তাহের মাঝামাঝিতে বর্ষণ আরো বাড়বে।

বাংলাদেশ সময়: ২১০৭ ঘণ্টা, জুলাই ০২, ২০২০
ইইউডি/এসআই
 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa