bangla news

বৃষ্টিতেই বেহাল সড়ক মেরামত, কাজের মান নিয়ে প্রশ্ন

অপু দত্ত, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০৭-০১ ৯:০৯:৫৭ এএম
সড়কের বেহাল অবস্থা। ছবি: বাংলানিউজ

সড়কের বেহাল অবস্থা। ছবি: বাংলানিউজ

খাগড়াছড়ি: খাগড়াছড়িতে গত কয়েক দিন ধরে প্রতিদিনই বৃষ্টি হচ্ছে। নিচু সড়ক ও খানাখন্দে জমে আছে বৃষ্টির পানি। মূল সড়কের বিভিন্ন জায়গায় নিম্নমানের কাজ হওয়ায় অল্প সময়ের মধ্যে ভেঙে গেছে। আর এমতাবস্থায় সড়কের খানাখন্দে জমে থাকা পানি সরিয়ে বিটুমিন, পাথর, বালি দিয়ে মেরামত করছে খাগড়াছড়ি সড়ক ও জনপদ বিভাগ। তবে কাজের মান নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন স্থানীয়রা।

সোমবার (২৯ জুন) সকালে খাগড়াছড়ির মহাজন পাড়া এলাকায় সড়ক বিভাগ বৃষ্টির মধ্যে ভাঙা সড়ক মেরামতের কাজ করতে দেখা যায়। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নজরে আনলে তাৎক্ষণিক কাজ বন্ধের নির্দেশ দেন খাগড়াছড়ি সড়ক ও জনপথের নির্বাহী প্রকৌশলী শাকিল মোহাম্মদ ফয়সাল। কিন্তু তার নির্দেশ উপেক্ষা করে শেষপর্যন্ত কাজ করেই গেছেন সড়ক বিভাগের লোকজন।

জানা যায়, খাগড়াছড়ি সড়ক বিভাগ বিভাগীয় মেরামতের মাধ্যমে সারা বছর সড়ক সংস্কারের জন্য নির্দিষ্ট একটি বরাদ্দ পায়। টেন্ডারের মাধ্যমে পাওয়া মালামাল ও নিজস্ব ফান্ডের অর্থ দিয়ে সড়ক সংস্কার করে থাকে। তারই অংশ হিসেবে খাগড়াছড়ি শহরের বিভিন্ন সড়কের সংস্কার কাজ চলছে। তবে বৃষ্টির মধ্যে সড়কের ভাঙা গর্ত থেকে পানি সরিয়ে বিটুমিনের কাজ করায় সেটির স্থায়িত্ব নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন স্থানীয়রা।

রাস্তা মেরামত করা হচ্ছে। ছবি: বাংলানিউজস্থানীয় ব্যবসায়ী দিপংকর তালুকদার বলেন, যেখানে সড়ক সংস্কার করা হচ্ছে সেখানে একটু পরই বৃষ্টির পানি জমবে। এখন যে কাজটুকু করেছে তা বৃষ্টির পানিতে ডুবে যাবে। এতে কোনো লাভ হবে বলে আমি মনে করছি না।

এদিকে, কাজ তদারকির জন্য সড়ক বিভাগের কোনো কর্মকর্তাকে দেখা যায়নি। অবশ্য মেরামত কাজে নিয়োজিত কয়েকজন দাবি করেছেন, পানি সরিয়ে ভালোভাবে কাজ করা হচ্ছে।

এবিষয়ে খাগড়াছড়ি সড়ক ও জনপথের নির্বাহী প্রকৌশলী শাকিল মোহাম্মদ ফয়সাল জানান, বিষয়টি নজরে এলে তাৎক্ষণিক কাজ বন্ধের নির্দেশ দেওয়া হয়। বৃষ্টির মধ্যে বিটুমিন দিয়ে করলে তা টিকবেনা বলেও স্বীকার করেন তিনি।

বাংলাদেশ সময়: ০৯০৩ ঘণ্টা, জুলাই ০১, ২০২০
এডি/ওএইচ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   খাগড়াছড়ি
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-07-01 09:09:57