ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২১ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৬ আগস্ট ২০২০, ১৫ জিলহজ ১৪৪১

জাতীয়

ঈশ্বরদী জংশন পরিদর্শনে রেলওয়ের পশ্চিমাঞ্চল জোনের জিএম

উপজেলা করসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০৬-৩০ ০৯:৫১:০৮ পিএম
ঈশ্বরদী জংশন পরিদর্শনে রেলওয়ের পশ্চিমাঞ্চল জোনের জিএম

পাবনা (ঈশ্বরদী): উত্তরবঙ্গের প্রবেশদ্বার হিসেবে খ্যাত পাবনার ঈশ্বরদী রেলওয়ে জংশন স্টেশন পরিদর্শন করেছেন রেলওয়ের পশ্চিমাঞ্চল জোনের জেনারেল ম্যানেজার (জিএম) মিহির কান্তি গুহ।

সোমবার (৩০ জুন) দুপুরে সৈয়দপুর থেকে ছেড়ে আসা ঈশ্বরদী জংশন হয়ে খুলনাগামী রূপসা এক্সপ্রেস ট্রেনটি ঈশ্বরদী রেলস্টেশনে পৌঁছালে পশ্চিমাঞ্চল জোন পাকশী বিভাগীয় রেলওয়ের ব্যবস্থাপক (ডিআরএম) আসাদুল হকের নেতৃত্বে রেলওয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ তাকে স্বাগত জানান।

পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের জেনারেল ম্যানেজার (জিএম) মিহির কান্তি গুহ ঈশ্বরদীর রেলওয়ে জংশন স্টেশনের নির্মাণ কাজগুলো পরিদর্শন করেন।

 

পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের জেনারেল ম্যানেজার মিহির কান্তি গুহ বাংলানিউজকে জানান, এই জংশন স্টেশনে স্বাধীনের পর কোনো উল্লেখযোগ্য উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি। পুরাতন বিল্ডিং, ট্রেনের উচ্চতার চেয়ে কয়েক ফুট নিচু প্লাটফর্ম ছিল। ট্রেনযাত্রীদের তেমন কোনো বসার জায়গা ছিল না। ২০১৯ সালের ২২ জুন ঈশ্বরদী জংশন স্টেশন পরিদর্শন করে রেলপথমন্ত্রী মহোদয় নুরুল ইসলাম সুজন প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন, ‘ঈশ্বরদী জংশন স্টেশনে যাত্রী-সেবার মান বাড়াতে একটু আধুনিকতার ছোঁয়া প্রয়োজন' তাৎক্ষণিক তিনি পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ে প্রধান প্রকৌশলীকে নির্দেশ দিয়েছিলেন। তার পরিপ্রেক্ষিতেই সম্প্রতি রেলপথ মন্ত্রণালয় রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে রেললাইন নির্মাণ, নতুন স্টেশন স্থাপন, রেললাইন সংস্কার কাজের পাশাপাশি তিনি ঈশ্বরদী প্লাটফর্মে যাত্রীদের সেবার মান বৃদ্ধির জন্য প্লার্টফর্ম সংস্কার, প্লার্টফর্ম উঁচু এবং যাত্রীদের মানবৃদ্ধির লক্ষ্যে আধুনিক টয়লেট, বসার স্হানসহ রেলওয়ের আধুনিক ইয়ার্ড ও ডিজিটালাইজডকরণসহ নানামুখি যুগোপযোগী উদ্যোগ হাতে নিয়েছে। কাজ শেষ হলে রেলপথ মন্ত্রণালয়ের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা পরিদর্শন করবেন।

এ ব্যাপারে পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ে পাকশীর বিভাগীয় দফতরের ব্যবস্থাপক (ডিআরএম) আসাদুল হকের নেতৃত্বে উপস্থিত ছিলেন- পাকশী বিভাগীয় বাণিজ্যিক কর্মকর্তা (ডিসিও) ফুয়াদ হোসেন আনন্দ, বিভাগীয় প্রকৌশলী-২ আব্দুর রহিম, বিভাগীয় রেলওয়ে নিরাপত্তা বাহিনীর কমান্ডেন্ট রেজাউন-উর-রহমানসহ বিভাগীয় কর্মকর্তাবৃন্দ, রেলওয়ের কর্মচারী ও আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা।  

পাকশী বিভাগীয় রেলওয়ে বিভাগীয় ব্যবস্থাপক (ডিআরএম) আসাদুল হক বাংলানিউজকে বলেন, বর্তমান রেলবান্ধব সরকার যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে কিছু প্রকল্প হাতে নিয়েছে। তাই  আধুনিক ও যুগোপযোগী করতে ঈশ্বরদী জংশন স্টেশনে সব ধরনের সুবিধা নিশ্চিত করা হবে।

মান্ধাতা আমলের এনালগ প্রযুক্তিগুলো বাতিল করে সময়োপযোগী ভ্রমণপ্রিয় ট্রেন যাত্রীদের সেবার মান বাড়াতেই এ পরিকল্পনা করা হয়েছে বলে জানান ওই কর্মকর্তা।  

বাংলাদেশ সময়: ২১৪৭ ঘণ্টা, জুন ৩০, ২০২০
আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa