bangla news

সংসদে গিয়েছিলেন করোনা আক্রান্ত টিপু মুনশি-মোকাব্বির

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০৬-১৮ ১:৪০:২৫ এএম
বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি ও এমপি মোকাব্বির খান

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি ও এমপি মোকাব্বির খান

ঢাকা: বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি করোনা আক্রান্ত। এ খবর পাওয়া গেছে বুধবার (১৭ জুন)। আর গণফোরামের এমপি মোকাব্বির খানের করোনা শনাক্ত হয়েছে মঙ্গলবার (১৬ জুন)। এই দুই জনপ্রতিনিধিই সম্প্রতি সংসদে গিয়েছিলেন।

জানা গেছে, করোনা আক্রান্ত বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি গত ১১ জুন জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিপরিষদের বিশেষ বৈঠক ও ১৫ জুন সংসদের অধিবেশনে সম্পূরক বাজেট পাশের দিন অধিবেশনেও অংশ নিয়েছিলেন। আর মোকাব্বির খান ১০ জুন বাজেট অধিবেশন শুরুর দিন অধিবেশন উপস্থিত ছিলেন। 

জানা গেছে, এ পর্যন্ত ১৩ জন সংসদ সদস্য (এমপি) করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। এমপিদের মধ্যে একজন সাবেক চিফ হুইপ রয়েছেন।

১৩ এমপির মধ্যে সরকারের মন্ত্রিপরিষদের সদস্য আছেন চার জন। তারা হলেন- মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক, বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি, পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং ও ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ। 

প্রতিমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ গত ১৩ জুন মারা গেছেন। এছাড়া সিরাজগঞ্জ-১ আসনের এমপি মোহাম্মদ নাসিমও মারা গেছেন। 

এদিকে সংসদ সদস্যদের পাশাপাশি জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীরাও করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। এদের সংখ্যা ৯১ জনের বেশি বলে জানা গেছে।

এ পরিস্থিতিতে জাতীয় সংসদের চলমান ২০২০-২১ অর্থ বছরের বাজেট অধিবেশন সংক্ষিপ্ত করা হয়েছে। গত ১৫ জুন সম্পূরক বাজেট পাশের পর আগামী ২৩ জুন পর্যন্ত অধিবেশন মুলতবি রাখা হয়েছে। শারীরিকভাবে অসুস্থ এবং বয়স্ক ২৫ জনের মতো সংসদ সদস্যকে সংসদে না যাওয়ার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে বলেও জানা গেছে।

এ ২৫ জন ছাড়া যারা সংসদের অধিবেশনে আসবেন তাদের প্রত্যেকে তিন দিনের বেশি সংসদে না আসতে বলা হয়েছে। অবশ্য সংসদ নেতা, স্পিকার, ডেপুটি স্পিকার ও হুইপদের ক্ষেত্রে এ বাধ্যবাধকতা নেই।

বাংলাদেশ সময়: ০১৪০ ঘণ্টা, জুন ১৮, ২০২০
এসকে/আরআইএস/

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-06-18 01:40:25