bangla news

করোনায় আক্রান্ত ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির ৩ চিকিৎসক

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০৬-১৭ ৫:৪২:১১ পিএম
অধ্যাপক ডা. উত্তম কুমার বড়ুয়া, ডা. মামুন আল মাহতাব (স্বপ্নীল) এবং শহীদ সন্তান ডা. নুজহাত চৌধুরী শম্পা।

অধ্যাপক ডা. উত্তম কুমার বড়ুয়া, ডা. মামুন আল মাহতাব (স্বপ্নীল) এবং শহীদ সন্তান ডা. নুজহাত চৌধুরী শম্পা।

ঢাকা: একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির তিন চিকিৎসক নেতা করোনা আক্রান্ত হয়েছেন।

এরা হলেন-অধ্যাপক ডা. উত্তম কুমার বড়ুয়া, অধ্যাপক ডা. মামুন আল মাহতাব (স্বপ্নীল) এবং শহীদ সন্তান ডা. নুজহাত চৌধুরী শম্পা।

বুধবার (১৭ জুন) এক প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানিয়েছে কমিটি।

এতে বলা হয়, করোনা ও অন্যান্য রোগাক্রান্তদের বিরামহীন চিকিৎসাসেবা দিতে গিয়ে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন এই চিকিৎসকরা।

নির্মূল কমিটির সভাপতি শাহরিয়ার কবির ও সাধারণ সম্পাদক কাজী মুকুল কর্তৃক স্বাক্ষরিত বিবৃতিতে বলা হয়, নির্মূল কমিটির চিকিৎসা সহায়ক কমিটির সভাপতি এবং শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল হাসপাতাল ও কলেজের পরিচালক অধ্যাপক ডা. উত্তম কুমার বড়ুয়া, চিকিৎসা সহায়ক কমিটির সাধারণ সম্পাদক এবং বঙ্গবন্ধু মেডিক্যাল হাসপাতাল ও বিশ্ববিদ্যালয়ের লিভার বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডা. মামুন আল মাহতাব (স্বপ্নীল) ও মুক্তিযুদ্ধে শহীদ ডা. আলিম চৌধুরীর কন্যা এবং নির্মূল কমিটির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ডা. নুজহাত চৌধুরী শম্পা বাংলাদেশে করোনা সংক্রমণের সূচনাকাল থেকে তাদের সব ছুটি বাতিল করে করোনাক্রান্ত ও অন্যান্য রোগীদের বিরামহীন চিকিৎসাসেবা দিয়েছিলেন। সেবা দেওয়ার একপর্যায়ে তারা নিজেরা করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

ডা. উত্তম বড়ুয়া এখন সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। ডা. স্বপ্নীল ও ডা. শম্পা নিজেদের বাড়িতে কোয়ারেন্টিনে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

২০১৮ সালে গঠিত নির্মূল কমিটির চিকিৎসা সহায়ক কমিটি করোনা সংক্রমণের সূচনা থেকে বিশিষ্ট চিকিৎসকদের নামে ইশতেহার ও ফেস্টুন প্রকাশের পাশাপাশি সারাদেশে সংগঠনের বাছাই করা ১০৮ জন চিকিৎসকের একটি বিশেষ প্যানেল ঘোষণা করেছে। তারা দিনের একটি নির্দিষ্ট সময় করোনা আক্রান্ত ও অন্যান্য রোগীদের টেলিফোনের মাধ্যমে চিকিৎসাসেবা দিয়েছেন। হাসপাতালে রোগীদের দেখার পাশাপাশি তারা টেলিভিশনের বিভিন্ন আলোচনায় নিয়মিত অংশগ্রহণ এবং গণমাধ্যমে লেখার মাধ্যমে করোনা সংক্রমণের বিরুদ্ধে স্বাস্থ্যসচেতনতা সৃষ্টির কার্যক্রমেও যুক্ত রয়েছেন বলে জানানো হয় বিবৃতিতে।

বিবৃতিতে আরো বলা হয়, যেসব চিকিৎসক নিজেদের এবং পরিবারের সদস্যদের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে এই মহামারির সময় চিকিৎসাসেবা অব্যাহত রেখেছেন, তারা আর্তমানবতার সেবায় সর্বোচ্চ দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। তারা গোটা জাতিকে কৃতজ্ঞতাপাশে আবদ্ধ করেছেন। আমরা তাদের অভিনন্দন জানাই। একইসঙ্গে তাদের পরিবার ও সংগঠনের পক্ষ থেকে আমরা আমাদের সব আক্রান্ত চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মী ও অন্যান্যদের দ্রুত আরোগ্যের জন্য দেশবাসী কাছে প্রার্থনা কামনা করি।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৪০ ঘণ্টা, জুন ১৭, ২০২০
এইচএমএস/এএটি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   করোনা ভাইরাস
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-06-17 17:42:11