ঢাকা, বুধবার, ১৫ আশ্বিন ১৪২৭, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১১ সফর ১৪৪২

জাতীয়

বাসের ভেতরে স্বাস্থ্যবিধি নয়, চলছে ‘প্রতারণাবিধি’

আবাদুজ্জামান শিমুল, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮০৯ ঘণ্টা, জুন ৩, ২০২০
বাসের ভেতরে স্বাস্থ্যবিধি নয়, চলছে ‘প্রতারণাবিধি’

ঢাকা: রাজধানীতে যাত্রীবাহী বাসগুলোতে ধীরে ধীরে যেন স্বাস্থ্যবিধি ভাঙার প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছে। এসব নিয়ে যাত্রীদের মাঝে ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হচ্ছে। বাসের ভেতরে থাকা যাত্রীরা একে অপরের প্রতি মন্তব্য ছুড়ে দিচ্ছেন- আস্তে আস্তে স্বাস্থ্যবিধি ভাঙার প্রতিযোগিতা চালাচ্ছে পরিবহন সেক্টর। এক সময় দেখবেন বাড়তি ভাড়া আমরা দিয়েই যাচ্ছি, কিন্তু স্বাস্থ্যবিধি বলতে কিছুই নেই। 

বুধবার (৩ জুন) দুপুরের দিকে সরেজমিনে খোঁজ নিয়ে রাজধানীর রামপুরা থেকে গুলিস্তানগামী বেশ কয়েকটি বাসে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মানার ব্যাপারটিকে আমলে নিতে দেখা যায়নি। যাত্রীদের বসার আসনে আপাত স্বাস্থ্যবিধি মানা হলেও, বাসের ভেতর একাধিক যাত্রীকে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায়।

 

এ রুটে চলাচল করে ভিক্টর পরিবহন। রামপুরায় এ পরিবহনের একটি বাসে উঠে দেখা যায়, দুজনের বসার জায়গায় একজন করে যাত্রী নেওয়া হয়েছে। কিন্তু বাসটি যখন শান্তিনগরে পৌঁছায়, তখন হেল্পারের সিগন্যাল অনুযায়ী চালক বাসটি থামান এবং সঙ্গে সঙ্গে দুই যাত্রী গুলিস্তানগামী ভিক্টরে উঠে পড়েন। বাসের অন্যান্য যাত্রীরা এসময় কন্ডাক্টরের উদ্দেশ্যে ক্ষোভ ঝেড়ে বলেন, বাসে কেন বাড়তি যাত্রী উঠালা, সিট তো খালি নেই। জবাবে কন্ডাকটর বলেন, তিন-চারজন যাত্রী কাকরাইল বাসস্ট্যান্ডে নেমে যাবে, তারপর সিট খালি হলে তারা বসবে।  
 
এ সময় এক যাত্রী বলেন, সামনে সিট খালি হবে এই কারণে তুমি এতো আগেই যাত্রী উঠাবা কেন? এটা কেমন স্বাস্থ্যবিধি। এটাতো প্রতারণাবিধি। মানুষের জীবন নিয়ে তোমরা খেলছো।

বাসে থাকা আরও কয়েক যাত্রী এর প্রতিবাদ জানান। কিন্তু, কন্ডাক্টর যাত্রীদের কথা না শোনার ভান করে পকেট থেকে টাকা বের করে অন্যমনস্ক হয়ে গুনতে থাকেন। এক পর্যায়ে বাসটি কাকরাইল বাসস্ট্যান্ডে পৌঁছালে কয়েকজন যাত্রী নেমে যান। পরে দাঁড়ানো যাত্রীরা খালি হওয়া ওইসব আসনে বসেন।  

এ সময় যাত্রীরা আবারও নিজেদের মধ্যে আলাপ করতে থাকেন- এই যে ভাড়া বাড়িয়েছে, এটা তো আর কোনো দিনো কমবে না। তাদের মতে, এই দেশে একবার যেটার দাম বাড়ে, সেটা আর কখনোই কমে না। স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য গণপরিবহনের ভাড়া বাড়িয়েছে সরকার। কিন্তু পরিবহন সেক্টর এই স্বাস্থ্যবিধি মানবে এটা তো কল্পনাই করা যায় না। বরং তারা ধীরে ধীরে স্বাস্থ্যবিধি ভাঙছে। আজকে ভেঙেছে দুই-একজন যাত্রী বেশি নিয়ে, কালকে দেখবেন আরো যাত্রী নিয়েছে। কারো কিছুই বলার নাই। এভাবেই যাত্রীরা নিজেদের মধ্যে কথা বলতে বলতে এক পর্যায়ে যার যার গন্তব্যে নেমে যেতে থাকেন।  

বাংলাদেশ সময়: ১৮০৮ ঘণ্টা, জুন ০৩, ২০২০ 
এজেডএস/এইচজে

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa