ঢাকা, বুধবার, ২৪ আষাঢ় ১৪২৭, ০৮ জুলাই ২০২০, ১৬ জিলকদ ১৪৪১

জাতীয়

টানা তৃতীয় দিন ঢাকা ওয়াসার সামনে অবস্থান কর্মসূচি

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০৩-০৬ ০২:৫১:০১ পিএম
টানা তৃতীয় দিন ঢাকা ওয়াসার সামনে অবস্থান কর্মসূচি টানা তৃতীয় দিনের মতো অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন ঢাকা শ্রমিক ইউনিয়ন (সিবিএ)। ছবি: শাকিল আহমেদ

ঢাকা: ঢাকা ওয়াসা প্রশাসনের শ্রমিকস্বার্থ বিরোধী কর্মকাণ্ডের প্রতিবাদে টানা তৃতীয় দিনের মতো অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছেন ঢাকা শ্রমিক ইউনিয়ন (সিবিএ)।

বুধবার (৩ এপ্রিল) রাজধানীর কারওয়ান বাজারে ওয়াসা ভবনের সামনে এ বিক্ষোভ কর্মসূচি পালিত হয়।

সারা পৃথিবীর মানুষ এক কঠিন দুঃসময় অতিক্রম করছেন।

যখন জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে দাঁড়িয়ে মানুষ বাঁচার আকুতিতে প্রার্থনারত, সেসময় ঢাকা ওয়াসার কর্মচারীরা রুটি-রুজির তাগিদে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চাকরি বাঁচানো ও ন্যায্য পাওনা আদায়ে আন্দোলন করছেন।

ঢাকা ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক তাকসিম এ খানের স্বৈরতান্ত্রিক আচরণ, চরম স্বেচ্ছাচারী কর্মকাণ্ড এবং নিয়মবহির্ভূত কার্যকলাপের কাছে শ্রমিক-কর্মচারীরা জিম্মি হয়ে পড়েছেন বলে অভিযোগ বিক্ষোভকারীদের।

তারা জানান, সারা দেশ যেখানে করোনা ভাইরাস মহামারির আতংকে অস্থির সময় অতিবাহিত করছে সেখানে ঢাকা ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) নিজ স্বার্থ হাসিলের উদ্দেশ্যে আউটসোর্সিংয়ের নামে বিধিবহির্ভূত নিয়োগ প্রক্রিয়া বহাল রেখেছেন। অথচ এখনো জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কর্মচারীরা পানি সরবরাহ, পয়ঃনিষ্কাশন ও বিল আদায় করে ঢাকা ওয়াসা সচল রেখেছেন, পরিবার-পরিজনের মায়া ত্যাগ করে দায়িত্ব ও কর্তব্য পালন করছেন নিরবচ্ছিন্নভাবে।

শ্রমিকদের অভিযোগ, তাদের ব্যক্তিগত নিরাপত্তা সরঞ্জাম, ঝুঁকিভাতা, ন্যায্য পাওনা, ওভারটাইম ফি না দিয়ে আউটসোর্সিংসহ নানা বিতর্কিত কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাচ্ছেন ওয়াসা এমডি।

টানা তৃতীয় দিনের মতো অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন ঢাকা শ্রমিক ইউনিয়ন (সিবিএ)।  ছবি: শাকিল আহমেদএসব বিষয়ে ঢাকা ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালককে ঢাকা ওয়াসা শ্রমিক ইউনিয়নের পক্ষ থেকে একাধিকবার লিখিতভাবে অবগত করা হয়। এরপরও তার ন্যূনতম বোধোদয় পরিলক্ষিত হয়নি বলেও জানান আন্দোলরত শ্রমিকরা। তাছাড়া, ওয়াসার অনেক কর্মচারীকেই তার রোষানলে বদলির তোপে পড়ে হয়রানির শিকার হতে হয়েছে।

আন্দোলনকারীরা বলছেন, ‘এমডির স্বেচ্ছাচারিতার কারণে ঢাকা ওয়াসা শ্রমিক-কর্মচারীদের দেয়ালে পিঠ ঠেকে যাওয়ায় আজ দেশের এ কঠিন দুঃসময়েও জীবনের ঝুঁকি নিয়ে জীবিকা রক্ষায় নিয়মতান্ত্রিক আন্দোলনে নামতে আমরা বাধ্য হয়েছি। ’

আন্দোলনের মাধ্যমে বেশ কয়েকটি দাবি দাওয়া তুলে ধরেছেন ঢাকা ওয়াসা শ্রমিক ইউনিয়ন সিবিএ নেতারা। এগুলো হলো: নিয়মিত কর্মচারী শূন্য, সেটআপ (অর্গানোগ্রাম) বাতিল, অনিয়ন্ত্রিত আউটসোর্সিং নিয়োগ বন্ধ, পূর্বের ন্যায় ডাবল রেট ওভার টাইম দেওয়া, কোভিড-১৯ এর মধ্যে হয়রানিমূলক বদলি বাতিল, সব এপিওদের রাজস্ব পরিদর্শক, এলডিএসহ পি়ও পদে পদোন্নতি দেওয়া, সর্বোপরি দ্বিপাক্ষিক চুক্তির মীমাংসিত সব দাবি বাস্তবায়ন এবং সময়োপযোগী কাজের উপযুক্ত পরিবেশ ও সরঞ্জাম দেওয়া।

এদিন আন্দোলনে ঢাকা ওয়াসার কর্মকর্তা-কর্মচারী ও শ্রমিকদের সঙ্গে আরও উপস্থিত ছিলেন ঢাকা শ্রমিক ইউনিয়ন (সিবিএ) সহ-সভাপতি তাছাদ্দক হোসেন, সাধারণ সম্পাদক আশকার ইবনে সাহেক খাজা, সহ-সাধারণ সম্পাদক আতাউল করিম হারুন।

বাংলাদেশ সময়: ১৪৫০ ঘণ্টা, জুন ০৩, ২০২০
এফএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa