bangla news

সিলেটে ঈদ জামাতে ১৩ নির্দেশনা মানতে হবে

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০৫-২৪ ৫:১৩:০৫ এএম
মসজিদে ঈদ জামাতের ফাইল ফটো

মসজিদে ঈদ জামাতের ফাইল ফটো

সিলেট: করোনা ভাইরাস স্বাস্থ্যবিধি মেনে পবিত্র ঈদুল ফিতরের নামাজের জামাত আদায়ে ১৩ নির্দেশনা দিয়েছে সিলেট মেট্টোপলিটন পুলিশ (এসএমপি)।

নগরবাসীকে পবিত্র ঈদ-উল-ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়ে এসএমপির পক্ষ থেকে নির্দেশনা সংক্রান্ত প্রেস বিজ্ঞপ্তি পাঠিয়েছেন উপ-পুলিশ কমিশনার (মিডিয়া) জেদান আল মুছা।

এতে উল্লেখ করা হয়, নাগরিক জীবনের নিরাপত্তা বিধান এবং বৈশ্বিক মহামারি করোনা (কোভিড-১৯) প্রতিরোধে এসএমপির পক্ষ থেকে সবার সহযোগিতা কামনা করা হয়।

জনস্বাস্থ্য বিবেচনায় স্বাস্থ্যসেবা বিভাগ, ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো নির্দেশাবলী অনুসরণ করে নিম্নবর্ণিত শর্তসাপেক্ষে সিলেট নগরবাসীকে পবিত্র ঈদ-উল-ফিতরের নামাজের জামাত আদায়ের জন্য অনুরোধ করা হলো।

১. বর্তমানে সারাবিশ্বসহ আমাদের দেশে করোনা ভাইরাসের (কোভিড-১৯) কারণে মুসল্লিদের জীবনের ঝুঁকি বিবেচনা করে এ বছর ঈদগাহ বা খোলা জায়গার পরিবর্তে ঈদের নামাজের জামাত নিকটস্থ মসজিদে আদায় করার জন্য অনুরোধ করা হলো। প্রয়োজনে একই মসজিদে একাধিক জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

২. ঈদের জামাতের সময় মসজিদে কার্পেট বিছানো যাবে না। নামাজের আগে সম্পূর্ণ মসজিদ জীবাণুনাশক দ্বারা পরিষ্কার করতে হবে। মুসল্লিরা প্রত্যেকে নিজ নিজ দায়িত্বে জীবাণুমুক্ত করে জায়নামাজ নিয়ে যাবেন।

৩. করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধ নিশ্চিতকল্পে মসজিদে ওজুর স্থানে সাবান/হ্যান্ড স্যানিটাইজার রাখতে হবে।

৪. মসজিদের প্রবেশদ্বারে হ্যান্ড স্যানিটাইজার/হাত ধোয়ার ব্যবস্থাসহ সাবান-পানি রাখতে হবে।

৫. প্রত্যেককে নিজ নিজ বাসা থেকে ওজু করে মসজিদে আসতে হবে এবং ওজু করার সময় কমপক্ষে ২০ সেকেন্ড সাবান দিয়ে হাত ধুতে হবে।

৬. ঈদের জামাতে আগত মুসল্লিকে অবশ্যই মাস্ক এবং নিজস্ব টুপি পরতে হবে। মসজিদে সংরক্ষিত জায়নামাজ ও টুপি ব্যবহার করা যাবে না।

৭. ঈদের নামাজ আদায়ের সময় কাতারে দাঁড়ানোর ক্ষেত্রে শারীরিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে দাঁড়াতে হবে।

৮.  এক কাতার অন্তর অন্তর কাতার করতে হবে।

৯. শিশু, বয়োবৃদ্ধ, যেকোনো অসুস্থ ব্যক্তি এবং অসুস্থদের সেবায় নিয়োজিত ব্যক্তি ঈদের জামাতে অংশগ্রহণ করতে পারবেন না।

১০.  সর্বসাধারণের সুরক্ষা নিশ্চিত কল্পে, স্বাস্থ্যসেবা বিভাগ, স্থানীয় প্রশাসন এবং আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণকারী বাহিনীর নির্দেশনা অবশ্যই অনুসরণ করতে হবে।

১১. করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধ নিশ্চিতকল্পে মসজিদে জামাত শেষে কোলাকুলি এবং পরস্পরে হাত মেলানো পরিহার করার জন্য অনুরোধ করা যাচ্ছে।

১২.  করোনা ভাইরাস মহামারি থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য পবিত্র ঈদ-উল-ফিতরের নামাজ শেষে মহান রাব্বুল আল আমিনের দরবারে দোয়া করার জন্য খতিব ও ইমামদের অনুরোধ করা যাচ্ছে।

১৩.  খতিব, ইমাম এবং মসজিদ পরিচালনা কমিটি বিষয়গুলো বাস্তবায়ন নিশ্চিত করবেন।

এছাড়া পুলিশকে তথ্য দিয়ে সহায়তার জন্য প্রয়োজনে এসএমপি কন্ট্রোল রুম (০৮২১-৭১৬৯৬৮, ০১৭১৩-৩৭৪৩৭৫, ০১৯৯৫-১০০১০০) সার্বক্ষণিক (২৪/৭) সেবা নিতে পারবেন। এছাড়া আকস্মিক বিপদের মুহূর্তে ৯৯৯ নম্বরের সহায়তা নিতে অনুরোধ করা হয়েছে।

সর্বোপরি এসএমপির পক্ষ থেকে অপরাধ দমন এবং শান্তিশৃঙ্খলা রক্ষায় নগরবাসীর সহযোগিতা চাওয়া হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৭০৮ ঘণ্টা, মে ২৪, ২০২০
এনইউ/টিএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   ঈদুল ফিতর করোনা ভাইরাস
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-05-24 05:13:05