bangla news

শ্লীলতাহানীর অভিযোগে স্বাস্থ্য সহকারীকে জুতাপেটা

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০৫-২২ ৮:৪৫:৫৪ পিএম
শ্লীলতাহানীর অভিযোগে স্বাস্থ্য সহকারীকে জুতাপেটা

শ্লীলতাহানীর অভিযোগে স্বাস্থ্য সহকারীকে জুতাপেটা

টাঙ্গাইল: টাঙ্গাইলের বাসাইলে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিতে আসা এক শিশুকে শ্লীলতাহানীর অভিযোগ উঠেছে সুবোধ কুমার দাসের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় বিক্ষুব্দ জনতা অভিযুক্ত ওই স্বাস্থ্য সহকারীকে জুতাপেটা করে।

শুক্রবার (২২ মে) দুপুরে বাসাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এ ঘটনা ঘটে। অভিযুক্ত সুবোধ কুমার দাস উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিক্যাল অফিসার হিসেবে কর্মরত রয়েছেন। শ্লীলতাহানীর শিকার ওই শিশু বাসাইল পৌরসভার বালিনা গ্রামের বাসিন্দা।

জানা যায়, ওই শিশুটির কানে ব্যথা অনুভব হলে শুক্রবার (২২ মে) সকালে তার মা তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। হাসপাতালের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিক্যাল অফিসার সুবোধ কুমার দাস ওই শিশুটির কানে চিকিৎসা দেওয়ার জন্য প্রাথমিক পরীক্ষা করেন।

আউটডোরে রোগী দেখাতে হলে টাকা লাগে এমন অযুহাতে একপর্যায়ে শিশুটির মায়ের কাছে পাঁচ টাকা দাবি করে অভিযুক্ত সুবোধ। তখন ওই শিশুটির মা টাকা ভাংতি করতে হাসপাতালের বাইরে যায়। এ সুযোগে শিশুটিকে শ্লীলতাহানী করেন তিনি। শিশুটির মা হাসপাতালে ফিরে এলে শিশুটি তাকে শ্লীলতাহানীর কথা জানায়। শিশুটির মা তাৎক্ষণিক প্রতিবাদ করলে হাসপাতাল এলাকায় উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। খবর পেয়ে শিশুটির পরিবারের অন্য সদস্যরা হাসপাতালে ছুটে যায়। এ সময় বিক্ষুব্ধ জনতা অভিযুক্ত ওই স্বাস্থ্যসহকারীকে জুতাপেটা ও এলোপাথাড়িভাবে কিল ঘুষি মারে। খবর পেয়ে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কাজী অলিদ ইসলাম ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শামছুন নাহার স্বপ্না ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন।

অভিযুক্ত স্বাস্থ্য সহকারী সুবোধ কুমার দাস বলেন, আমরা বিভিন্ন সময় রোগী দেখি। এতে করে যদি কেউ খারাপ কিছু মনে করে তাতে আমার কিছু বলার নাই। শ্লীলতাহানীর বিষয়টি তিনি অস্বীকার করেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. ফিরোজুর রহমান বাংলানিউজকে বলেন, অভিযুক্ত ওই স্বাস্থ্য সহকারীকে অন্যত্র বদলি করার ব্যবস্থা করা হচ্ছে। এ ঘটনায় বিক্ষুব্ধ জনতা তাকে জুতাপেটা করে ও কিল ঘুষি দেয়।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শামছুন নাহার স্বপ্না বাংলানিউজকে বলেন, ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে বিক্ষুব্ধ জনতাকে শান্ত করি। এ সময় অভিযোগকারী কোনো লিখিত অভিযোগ দেয়নি। এ ঘটনায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ব্যবস্থা নেবে।

বাংলাদেশ সময়: ২০৩০ ঘণ্টা, মে ২২, ২০২০
এনটি

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-05-22 20:45:54