bangla news

নরসিংদী লকডাউন ঘোষণা

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০৪-০৯ ৬:৩৫:২৭ এএম
প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

নরসিংদী: করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধে নরসিংদী জেলাকে লকডাউন (অবরুদ্ধ) ঘোষণা করেছেন জেলা প্রশাসক সৈয়দা ফারহানা কাউনাইন। 

বৃহস্পতিবার (৯ এপ্রিল) সকাল থেকে এ আদেশ কার্যকর হবে ও পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত তা কার্যকর থাকবে বলেও জানান তিনি।

বুধবার (৮ এপ্রিল) বিকেল ৪টার দিকে এ আদেশ জারি করা হয়। 

এদিকে নরসিংদীর পলাশ উপজেলার পর রায়পুরা উপজেলাতে দুইজন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নরসিংদীর অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) ও নরসিংদী করোনা প্রতিরোধ জরুরি সেলের প্রধান ইমরুল কায়েস।

নির্দেশনা অনুযায়ী নরসিংদী জেলায় জনসাধারণের প্রবেশ ও প্রস্থান নিয়ন্ত্রণ করা হবে। ঢাকা-সিলেট জাতীয় মহাসড়ক ছাড়া জেলা, উপজেলার অন্য সব রাস্তা ও সীমানা দিয়ে ভিন্ন জেলায় যাতায়াতে প্রবেশ ও প্রস্থানের নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। এ সময় সবধরনের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, গণজমায়েত, গণপরিবহন, দিন-রাতে জনসাধারণের চলাচল বন্ধ থাকবে। তবে জরুরি সেবা, খাদ্যসামগ্রী সরবরাহ ও চিকিৎসা এর আওতাবহির্ভুত থাকবে। এ আদেশ অমান্য করলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এদিকে নরসিংদীর রায়পুরা উপজেলার পলাশতলীর শাহপুর গ্রামে দু’জন করোনা ভাইরাস আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে।

জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত দু’জনের মধ্যে একজন ওষুধ কোম্পানির প্রতিনিধি তিনি গত কয়েকদিন যাবত জ্বর, ঠান্ডা ও কাশিতে ভুগছিলেন। গত ৪ এপ্রিল (শনিবার) তিনি নারায়ণগঞ্জ থেকে রায়পুরাতে আসেন। করোনা উপসর্গ দেখা দিলে গত সোমবার (৬ এপ্রিল) তার নমুনা সংগ্রহ করে রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটে (আইইডিসিআর) পাঠায় স্থানীয় স্বাস্থ্য বিভাগ। পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে মঙ্গলবার (৭ এপ্রিল) রাতে তার করোনা ভাইরাস পজিটিভ ধরা পড়ে। পরে ওই গ্রামটি লকডাউন করে দেওয়া হয় এবং তাকে আইসোলেশনে পাঠানো হয়। তার পরিবারের সদস্যদের হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে।

এদিকে করোনা আক্রান্ত অপরজন জেলা হাসপাতালের মালি। তিনি গত কয়েকদিন যাবত জ্বর, ঠান্ডা ও কাশিতে ভুগছিলেন। করোনা ভাইরাস উপসর্গ দেখা দিলে মঙ্গলবার (৭ এপ্রিল) তার নমুনা সংগ্রহ করে আইইডিসিআরে পাঠায় জেলা হাসপাতাল কতৃর্পক্ষ। পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে বুধবার বিকেলে তার করোনা পজিটিভ ধরা পড়ে।

নরসিংদীর সিভিল সার্জন ডা. মো. ইব্রাহীম টিটন বলেন, নরসিংদীতে মোট তিন জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। এর আগে পলাশ উপজেলার ডাঙ্গা ইউনিয়নের ইসলামপাড়া এলাকার একজনের করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে।  তিনি পলাশ উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে রয়েছে। আর হোম কোয়ারেন্টিনে ২৩১ জনকে রাখা হয়েছে।

নরসিংদীর অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) ও নরসিংদী করোনা প্রতিরোধ জরুরি সেলের প্রধান ইমরুল কায়েস বলেন, করোনা ভাইরাস ঝুঁকি মোকাবিলা ও সুরক্ষার প্রয়োজনে নরসিংদী জেলাকে লকডাউন (অবরুদ্ধ) ঘোষণা করা হয়েছে। কারণ নরসিংদীতে যে তিনজন করোনা আক্রান্ত রোগী পাওয়া গেছে। তারা দুই জনই নারায়ণগঞ্জ থেকে এসেছেন। সে কারণেই এ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। আর রায়পুরা উপজেলার শাহপুর গ্রামসহ আশেপাশের পাঁচটি গ্রাম, ডৌকারচরের একটি গ্রাম এবং পলাশের ইসলামপাড়া গ্রামটি লকডাউন করা হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ০৬৩৫ ঘণ্টা, এপ্রিল ০৯, ২০২০
আরআইএস/

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-04-09 06:35:27