ঢাকা, শনিবার, ৩০ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৫ আগস্ট ২০২০, ২৪ জিলহজ ১৪৪১

জাতীয়

ফোন পেয়ে ১৫ পরিবারে খাবার পৌঁছাল জেলা প্রশাসন

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১১৩০ ঘণ্টা, এপ্রিল ৩, ২০২০
ফোন পেয়ে ১৫ পরিবারে খাবার পৌঁছাল জেলা প্রশাসন

বরিশাল: করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় সাধারণ ছুটি ঘোষণা করেছে সরকার। এসময়ে সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী প্রায় সবকিছুই বন্ধ রয়েছে। ঘরে মাত্র একদিনের খাবার আছে। পরদিন কি না খেয়ে থাকতে হবে। এমন পরিস্থিতিতে কোনো উপায় না দেখে ষাটোর্ধ্ব নুরজাহান বেগম ফোন দেন বরিশাল জেলা প্রশাসকের কাছে। ফোন পেয়ে সঙ্গে সঙ্গে সেখানে ত্রাণ নিয়ে হাজির হন জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা।

বৃহস্পতিবার (২ এপ্রিল) রাত ৮টার দিকে প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে কর্মহীন নিম্নআয়ের খেটে-খাওয়া মানুষের জীবন-যাপনের কথা বিবেচনা করে তাদের দাঁড়িয়েছেন জেলা প্রশাসক। ফোন পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ১৫ পরিবারের জন্য খাবার পৌঁছে দিয়েছেন জেলা প্রশাসক এস এম অজিয়র রহমান।

জেলা প্রশাসক কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, রাত ৮ টার দিকে জেলা প্রশাসকের মোবাইলে একটি কল আসে। যেখানে জানানো হয়, বরিশাল নগরের বিবির পুকুরের পূর্ব পাড়ে আদালত পাড়ায় ১৫ টি পরিবারের ঘরে পরের দিনের জন্য রান্না করার মতো চাল নেই।

এ কথা শোনা মাত্রই সময়ক্ষেপণ না করে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে তার প্রতিনিধিরা ১৫ টি পরিবারের ঘরে ঘরে গিয়ে ১০ কেজি চাল, ৫ কেজি আলু, ২ কেজি ডাল এবং একটি সাবান পৌঁছে দেন।

পেয়ে আবেগ আপ্লুত হয়ে পড়েন অনেকে। সেখা ষাটোর্ধ্ব নুরজাহান বেগম বলেন, আইজ যদি চাউল না পাইতাম হেলে কাইল না খাইয়া থাহোন লাগতো। ডিসি স্যারে কইছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ চাউল-ডাইল পাঠাইছে, আমি হ্যার জন্য দোয়া করি।

বাংলাদেশ সময়: ১১২৫ ঘণ্টা, এপ্রিল ০৩, ২০২০
এমএস/ওএইচ/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa