bangla news

ফেনীতে বিদেশফেরত আরও ৫ জন হোম কোয়ারেন্টিনে

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০৪-০১ ৪:২৭:৩৪ পিএম
প্রতীকী

প্রতীকী

ফেনী: করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে ফেনীতে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আরও পাঁচজন বিদেশফেরতকে হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। বর্তমানে জেলায় ১০৫১ বিদেশফেরত হোম কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন। তাদের সঙ্গে হোম কোয়ারেন্টিনে রয়েছে তাদের পরিবারের সদস্যরাও।

অপরদিকে, গত ২৪ ঘণ্টায় ১৪ দিনের ১৭২ জনের হোম কোয়ারেন্টিন শেষ হয়েছে। এ পর্যন্ত ৭৩৮ জনের হোম কোয়ারেন্টিন শেষ হয়েছে। যেসব বিদেশফেরতদের ১৪ দিনের হোম কোয়ারেন্টিন শেষ হয়েছে তাদের মৌখিক ছাড়পত্র দিয়ে পর্যবেক্ষণে রেখেছে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ।

শনিবার (১ এপ্রিল) দুপুর দেড়টার দিকে ফেনী জেলা সিভিল সার্জন অফিসের মেডিক্যাল অফিসার তাহসিন নুর অমি বাংলানিউজকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

জেলা সিভিল সার্জন ডা. সাজ্জাদ হোসেন বলেন, বিমান বন্দরের তথ্যানুযায়ী জেলায় এ র্পযন্ত ৫৩০০ জনের বেশী প্রবাসী বাড়ি ফিরেছেন। বাকিদের কোনো তথ্য না থাকায় তাদের হোম কোয়ারেন্টিনের আওতায় আনা সম্ভব হচ্ছে না। ইমিগ্রেশন থেকে যে তথ্য দেওয়া হয়েছে সে ঠিকানায় তাদের পাওয়া যাচ্ছে।

কোয়ারেন্টিনে থাকা সবাইকে পর্যবেক্ষণে রেখেছে জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন ও জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ। সাদা পোশাকেও পুলিশ কোয়ারেন্টিনে থাকা লোকজনকে পর্যবেক্ষণ করছে। এর বাইরে জেলা প্রশাসন ও স্থানীয় চেয়ারম্যান-মেম্বারদেরও তাদের তদারকির দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে প্রবাসীদের যথাযথভাবে হোম কোয়ারেন্টিন মানার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। যারা এ নির্দেশনা মানবেন না তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তবে কোয়ারেন্টিনে থাকা লোকজনের সামাজিক নিরাপত্তার কথা ভেবে তাদের পরিচয় গোপন রাখা হচ্ছে।

জেলা প্রশাসক মো. ওয়াহিদুজ্জামান জানান, প্রবাসী অধ্যুষিত ফেনীতে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ ঠেকাতে নানা উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এখানকার জনপ্রতিনিধি ও সরকারি কর্মকর্তাদের মাধ্যমে বিদেশফেরতদের হোম কোয়ারেন্টিন পালনে বাধ্য করা হচ্ছে।

এদিকে মাঠে রয়েছে সেনাবাহিনী। তারা বিদেশফেরতদের হোম কোয়ারেন্টিনে থাকা এবং সব জনসাধারণকে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে অনুরোধ করেছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৬২২ ঘণ্টা, এপ্রিল ০১, ২০২০
এসএইচডি/ওএইচ/

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   করোনা ভাইরাস
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-04-01 16:27:34