bangla news

নিম্ন আয়ের মানুষের বাড়ি পৌঁছে যাচ্ছে খাবার

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০৩-২৮ ৪:২৬:৫৮ পিএম
নিম্ন আয়ের মানুষদের খাবার দেওয়া হচ্ছে।

নিম্ন আয়ের মানুষদের খাবার দেওয়া হচ্ছে।

ফেনী: করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণ রোধে সারাদেশে চলছে কার্যত লকডাউন। চলছে না স্বল্প ও দূরত্বের যানবাহন। এতে সবচেয়ে বেশি বিপাকে পড়েছে নিম্ন আয়ের মানুষ।

এমন পরিস্থিতিতে ফেনীর সোনাগাজী পৌর এলাকার নিম্ন আয়ের মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন পৌর মেয়র ও সোনাগাজী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট রফিকুল ইসলাম।

ব্যক্তিগত তহবিল থেকে এক হাজার পরিবারকে খাদ্যপণ্য পৌঁছে দিচ্ছেন তিনি। খাদ্যপণ্যের মধ্যে রয়েছে চাল, ডালসহ শুকনো খাবার। 

মেয়র বলেন, সব জায়গায় আর্থিক সংকটে পড়েছে শ্রমজীবী মানুষ। কাজ নেই, তাই খাবার নেই। মানুষের স্বাস্থ্য নিরাপত্তা প্রশ্নে সরকারের পক্ষ থেকে সামাজিক দূরত্বের ওপর সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। এ অবস্থায় তারা যেন খেতে পায় তাই এ উদ্যোগ নিয়েছি।

তিনি বলেন, প্রাথমিকভাবে এক হাজার পরিবারের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হলেও যতদিন মানুষের সহায়তা প্রয়োজন হবে ততদিন এ কার্যক্রম চলবে।

রফিকুল ইসলাম জানান, পৌর এলাকায় কাউন্সিলর ও ব্যক্তিগতভাবে মানুষের কাছে সহযোগিতার খবর পৌঁছে দেওয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, আমার ব্যক্তিগত মোবাইল নম্বরে সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত তথ্য গ্রহণ করছি। এরপর স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সঙ্গে নিয়ে সুনির্দিষ্ট পরিবারের হাতে শুকনো খাবার তুলে দেওয়া হচ্ছে। সাহায্যপ্রার্থীদের মধ্যে রিকশাচালক, দিনমজুর অন্যতম। 

সহযোগিতাপ্রাপ্ত খোরশেদ আলম বলেন, বাজার বন্ধ তাই কাজ নাই। একদিন কাজ না করলে সংসার চলে না। এ খাবারে আমার সংসারের কয়েকদিন চলে যাবে। 

সরকারের পক্ষ থেকে নিম্ন আয়ের মানুষের জন্য ত্রাণ সহায়তা প্রসঙ্গে রফিকুল ইসলাম বলেন, সোনাগাজী পৌরসভাকে সরকারিভাবে তিন লাখ টাকা ত্রাণ সহায়তা দেওয়া হচ্ছে। এ টাকাও নিম্ন আয়ের মানুষদের ভোগ্যপণ্যের জন্য ব্যয় হবে।

স্থানীয়রা জানান, কারো পরিবারে খাবার সংকট দেখা দিলে পৌর মেয়র বা কমিশনারদের ফোনে অবহিত করলেই ঠিকানা অনুযায়ী খাবার পৌঁছে দিচ্ছেন পৌর মেয়রসহ পৌর কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। এমন উদ্যোগ সত্যিই প্রশংসার দাবিদার।

বাংলাদেশ সময়: ১৬২২ ঘণ্টা, মার্চ ২৮, ২০২০
এসএইচডি/আরবি/

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   ফেনী করোনা ভাইরাস
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-03-28 16:26:58