bangla news

গাইবান্ধায় হোম কোয়ারান্টিনে ২২৯ জন, নমুনা সংগ্রহে আইইডিসিআর

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০৩-২৬ ৪:৫৫:২৬ পিএম
ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

গাইবান্ধা: গাইবান্ধায় বিদেশ ফেরত দুই প্রবাসীর সংস্পর্শে আসা ২২৯ জনকে হোম কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়েছে। তাদের নমুনা সংগ্রহ করেছে আইইডিসিআর।

বৃহস্পতিবার (২৬ মার্চ) দুপুরে গাইবান্ধার সিভিল সার্জন এবিএম আবু হানিফ বাংলানিউজকে জানান, ঢাকা থেকে আসা আইইডিসিআ’র দলটি প্রথমত সাদুল্যাপুরে বিয়ে বাড়িতে যারা করোনায় আক্রান্ত দুই প্রবাসীর সংস্পর্শে এসেছিলেন, তাদের চিহ্নিত করার কাজ করে। পরে তারাসহ হোম কোয়ারেন্টিনে থাকা ব্যক্তিদের শনাক্ত করে। পরে তাদের নমুনা হিসেবে রক্ত ও কফ সংগ্রহ করেন বুধবার সন্ধ্যা পর্যন্ত।

এরআগে, সোমবার (২৪ মার্চ) বিকেলে ডা. সোহেল রহমানের নেতৃত্বে আইইডিসিআর’র প্রতিনিধি দল গাইবান্ধায় আসেন। বুধবার (২৫ মার্চ) রাতেই দলটি এসব নমুনা নিয়ে ঢাকায় ফিরে যান। সেখানে তারা পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর ফলাফল জানাবেন।

তিনি আরও জানান, এ পর্যন্ত জেলায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা দুইজন। তারা সস্পর্কে মা-ছেলে। ১০ মার্চ যুক্তরাষ্ট্র থেকে দু’জন গাইবান্ধায় আসেন। তারা ১৩ মার্চ জেলার সাদুল্যাপুর উপজেলায় একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে তারা যোগ দেন। বিয়ের অনুষ্ঠানে পাঁচ শতাধিক মানুষ অংশ নেন।

পরে ১৫ মার্চ ওই দুই প্রবাসীর নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকায় আইইডিসিআরে পাঠানো হয়। পরে দু’জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত বলে জানায় আইইডিসিআর। বর্তমানে তারা গাইবান্ধা শহরে এক আত্মীয়ের বাসায় অবস্থান করছেন।

গাইবান্ধার জেলা প্রশাসক মো. আব্দুল মতিন বাংলানিউজকে জানান, উদ্ভূত পরিস্থিতি মোকাবেলায় আমরা প্রস্তুত রয়েছি। সঙ্গে সেনাবাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। তারা প্রশাসন ও স্বাস্থ্য বিভাগের কাজে সার্বিক সহযোগিতা করছেন।

এদিকে, করোনা আতঙ্কে গাইবান্ধা সদরসহ সাত উপজেলার দোকানপাট বন্ধ রয়েছে। শহরগুলো অনেকটাই ফাঁকা। আজকেও সাদুল্যাপুর উপজেলা শহর জেলা-উপজেলা শহরের হোটেল-রেস্তোরাঁগুলোতে লোকজনের উপস্থিতি কম। বিকেলে হাট-বাজারে লোকজন কিছুটা উপস্থিতি থাকলেও যানবাহন চলাচল ছিল অনেক কম। মাস্ক না পরে কেউ ঘরের বাইরে বের হচ্ছেন না।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৪৮ ঘণ্টা, মার্চ ২৬, ২০২০
এনটি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   করোনা ভাইরাস
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-03-26 16:55:26