ঢাকা, শনিবার, ৪ আশ্বিন ১৪২৭, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০০ সফর ১৪৪২

জাতীয়

করোনার কালে জনশূন্য রাজধানী

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৪০৮ ঘণ্টা, মার্চ ২৬, ২০২০
করোনার কালে জনশূন্য রাজধানী

ঢাকা: যে শহরে কখনো পাখির ডাক শোনা যায়নি, সে শহর এখন পাখির কলকাকলিতে মুখর। করোনার এসব ভয়াল দিনে জনসমুদ্রের রাজধানী এখন পুরোটাই বিরান হয়ে পড়ে আছে। সব সময়ের ব্যস্ত থাকা ঢাকা মহানগরী ১০ দিনের ছুটিতে খাঁখাঁ করছে।

বৃহস্পতিবার (২৬ মার্চ) ঢাকার বিভিন্ন এলাকা ঘুরে এ চিত্রই দেখা যায়। ঈদের ছুটিতে বেশিরভাগ মানুষ বাড়ি চলে গেলে যতোটা ফাঁকা হয়, এখন রাজধানী তার চেয়েও জনশূন্য, নিস্তব্ধ।

খুব প্রয়োজনীয় জিনিপত্র ছাড়া বন্ধ সবকিছুর দোকান। নেই কোনো যানবাহনও।

সব মিলিয়ে এ যেন এক যুদ্ধাবস্থা। থমথমে চারপাশ। এ যুদ্ধ প্রাণঘাতী করোনার বিরুদ্ধে। এতে জয়ী হতে হলে বাইরে নয়, ঘরে অবস্থান করাই অতি জরুরি। যারা আজ ঘরে, তারাই এ যুদ্ধের বীর। যে যার যার ঘরে অবস্থান নিয়েই নিশ্চিত করতে হবে সামাজিক বিচ্ছিন্নতা। আর তাতেই পরাজিত হবে কভিড-১৯ ভাইরাস।

স্বাধীনতা দিবস হলেও, দুপুরে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা ঘুরে কোথাও তেমন জনসমাগম চোখে পড়েনি। কেউ বেরোচ্ছে না ঘর থেকে। খুব জরুরি দরকারে বের হলেও পুলিশকে যথাযথ কার্যকারণ দেখাতে হবে। তবে এই কড়াকড়ির আওতামুক্ত আছে কেবলমাত্র জরুরি সেবাগুলো। আর বিশেষ কাজে বের হওয়া গুটিকয় গাড়িগুলোর চলাচল নিয়ন্ত্রণ করছে পুলিশ।  

রাজধানীতে কালেভদ্রে মিলছে দুয়েকটা গাড়ি ।  ছবি: ডিএইচ বাদল/বাংলানিউজনিউমার্কেট এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, যেখানে প্রতিদিন হাজার-হাজার, লাখ-লাখ মানুষের ভিড়, সেই এলাকা শুনশান পড়ে আছে। কোথাও কেউ নেই। বন্ধ সব দোকান। একই অবস্থা শহরের অন্যান্য স্থানেও।

এদিকে করোনা প্রতিরোধে বিভিন্ন এলাকায় পুলিশের পক্ষ থেকে মাইকিং করেও মানুষজনকে ঘরে অবস্থানের কথা প্রচার করা হচ্ছে।

 

এ প্রসঙ্গে কলাবাগান থানা থেকে জানানো হয়, বিশেষ প্রয়োজন ছাড়া এই সময় সবাইকেই ঘরে অবস্থান করতে হবে। কঠোরভাবে তা নিশ্চিত করতে কাজ করছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

বাংলাদেশ সময়: ১৪০৫ ঘণ্টা, মার্চ ২৬, ২০২০
এইচএমএস/এইচজে

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa