ঢাকা, শুক্রবার, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ১৭ রবিউস সানি ১৪৪২

জাতীয়

কুমিরের চোখে ঘুষি মেরে জীবন বাঁচালো কিশোর

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯০৮ ঘণ্টা, মার্চ ১৬, ২০২০
কুমিরের চোখে ঘুষি মেরে জীবন বাঁচালো কিশোর

বাগেরহাট: বাগেরহাটে কুমিরের চোখে ঘুষি দিয়ে জীবন বাঁচিয়েছে শেখ রাকিব (১৫) নামে এক কিশোর। সোমবার (১৬ মার্চ) দুপুরে খানজাহান আলী দিঘীতে এ ঘটনা ঘটে। 

বিকেলে বাগেরহাট সদর হাসপাতালের বিছানায় শুয়ে শেখ রাকিব বলে, দুপুরে খানজাহান আলী দিঘীর প্রধান ঘাটের সিঁড়িতে গোসল করছিলাম। হাত-পা ও শরীরে পানি দিচ্ছিলাম।

কিছু বুঝে ওঠার আগেই একটি কুমির এসে আমার ডান পা কামড়ে ধরে গভীর পানিতে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। জীবন বাঁচাতে আমি কুমিরের চোখ, নাখসহ মাথায় এলোপাতাড়ি ঘুষি মারতে শুরু করি। একপর্যায়ে কুমিরটি আমার পা ছেড়ে দেয়। আমি তাড়াতাড়ি ওপরে উঠে আসি। পরে বন্ধুরা আমাকে উদ্ধার করে বাগেরেহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

আহত রাকিব বাগেরহাটের খানজাহান আলী মাজার সংলগ্ন রনবিজয়পুর গ্রামের জাকিরের ছেলে। সে কে আলী দরগা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণির শিক্ষার্থী।

রাকিবের বোন জাকিয়া বলেন, দুপুরে প্রতিদিনের মত বন্ধুদের সঙ্গে মাজারের দিঘীতে গোসল করতে যায় রাকিব। সেখানে কুমির তাকে আক্রমণ করে। ও কীভাবে কুমিরের হাত থেকে বাঁচল জানিনা। আল্লাহ-ই আমার ভাইকে বাঁচিয়েছে।

রাকিবের বন্ধু তাহছিন ফকির বলেন, দুপুরে গোসল করতে নামলে রাকিবকে কুমিরটি আক্রমণ করে। অনেক ধ্বস্তাধস্তির পরে সে উপরে উঠে আসে। এসময় অনেক লোক জড়ো হয়। পরে আমরা রাকিবকে বাগেরহাট সদর হাসপাতালে নিয়ে আসি।

তাহছিন আরও বলেন, এখন কুমিরের ডিম পাড়ার সময়। আর ডিম পাড়ার সময় কুমির একটু হিংস্র হয়ে যায়। তাই হয়তো কুমিরটি রাকিবকে আক্রমণ করেছে।

বাগেরহাট সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডা. ফারহান আতিক বলেন, দুপুরে কুমিরের আক্রমণে আহত এক কিশোর হাসপাতালে আসে। কুমিরের কামড়ে তার ডান পায়ের  বিভিন্ন জায়গায় ক্ষত হয়েছে। আমরা তাকে পর্যাপ্ত চিকিৎসা দিয়েছি। এখন সে শঙ্কামুক্ত আছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৯০৪ ঘণ্টা, মার্চ ১৬, ২০২০
আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa