bangla news

বান্দরবানে বিনোদনের নতুন মাত্রা, নির্মিত হচ্ছে শিশুপার্ক

কৌশিক দাশ, ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০২-১৮ ১০:১৪:৩১ এএম
নির্মিত হচ্ছে শিশুপার্ক

নির্মিত হচ্ছে শিশুপার্ক

বান্দরবান: বান্দরবান সদরের রোয়াংছড়ি বাসস্টেশন এলাকায় নির্মিত হচ্ছে শিশুদের বিনোদনের জন্য দৃষ্টিনন্দন আধুনিক শিশুপার্ক। পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের অর্থায়নে প্রায় ২ কোটি টাকা ব্যয়ে সাঙ্গু নদীর পাড়ে এক একর জমির উপর শিশু পার্কটি তৈরি করছে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ইউটি মং। এদিকে দীর্ঘদিন পরে বিনোদনের জন্য বান্দরবানে একটি শিশু পার্ক নির্মাণ করায় খুশি স্থানীয় জনসাধারণ ও শিশু কিশোররা।

জেলা সদরের বাসিন্দা সোলেমান হোসেন বাংলানিউজকে বলেন, বান্দরবান শহরে শিশুদের বিনোদনের জন্য কোনো ব্যবস্থা নেই। এই শিশু পার্কটি নির্মাণ হলে শিশুদের বিনোদনের ব্যবস্থা হবে, তবে যত দ্রুত পার্কটি নির্মাণ হবে তত দ্রুতই আমাদের শিশুদের জন্য বিনোদনের ব্যবস্থা হবে।
 
জেলা সদরের বাসিন্দা বাটিং মার্মা বাংলানিউজকে বলেন, বান্দরবানে শিশু কিশোরদের বিনোদনের কোনো সু-ব্যবস্থা নেই, দীর্ঘদিন পরে হলে ও বান্দরবান সদরে একটি শিশু পার্ক নির্মাণ হচ্ছে জেনে আনন্দিত হলাম।

পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের বান্দরবান ইউনিটের নির্বাহী প্রকৌশলী আবু বিন মো. ইয়াছির আরাফাত বাংলানিউজকে বলেন, ইতোমধ্যে পার্কের ৮০ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে। বান্দরবান শহরে শিশুদের খেলাধুলা ও বিনোদনের কোনো ব্যবস্থা না থাকায় ২০১৭ সালে শিশু পার্কটি নির্মাণের উদ্যোগ নেয় পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড। প্রাথমিক পর্যায়ে ১ কোটি টাকা ব্যয়ে পার্কটি নির্মাণ কাজের ভিত্তি প্রস্তর উদ্বোধন করেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং। পরবর্তী সময়ে প্রকল্প ব্যয় বৃদ্ধি করে প্রায় ২ কোটি টাকা করা হয়। পার্কটির নির্মাণ কাজ এখনো চলছে।

তিনি আরো জানান, শিশুদের বিনোদনের জন্য এ পার্কের বিভিন্ন রাইড ক্রয়ের কাজ চলছে। দেশের ও বাইরের উন্নত রাইড চলে এলে সেগুলো স্থাপন শেষে এই শিশু পার্কের কাজ সমাপ্ত হবে। ২০২০ সালের জুন মাসের মধ্যে এই শিশু পার্কের কাজ সমাপ্ত হওয়ার কথা জানান বান্দরবান ইউনিটের নির্বাহী প্রকৌশলী আবু বিন মো. ইয়াছির আরাফাত।

সূত্রে জানা যায়, প্রাথমিকভাবে শিশুদের চড়ার জন্য ৮টি ছোট বড় রাইড স্থাপন করা হবে এ পার্কে। এ ছাড়া বিভিন্ন স্থাপত্যশৈলী কারুশিল্প মৃৎশিল্পের কাজ করা হচ্ছে পার্কের বাইরে ও ভেতরের অংশে।

স্থানীয়দের প্রত্যাশা, দ্রুত সময়ে এই শিশু পার্কের কাজ শেষ হবে, আর বিনোদনের জন্য উন্মুক্ত হবে এই দৃষ্টিনন্দন শিশু পার্ক।

বাংলাদেশ সময়: ১০১১ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১৮, ২০২০
এসএইচ

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2020-02-18 10:14:31