bangla news

২০২৪ সালের মধ্যে ৩১টি মিশনে চ্যান্সারি ও রাষ্ট্রদূত ভবন

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০২-০২ ৬:৫০:১৬ পিএম
সংসদ ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন

সংসদ ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন

ঢাকা: ২০২৪ সালের মধ্যে বিশ্বের ৩১টি মিশনে চ্যান্সারি ও রাষ্ট্রদূত ভবন নির্মাণ করা হবে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

রোববার (০২ ফেব্রুয়ারি) জাতীয় সংসদের অধিবেশনে ঢাকা-২০ আসনে আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য বেনজীর আহমেদের টেবিলে উত্থাপিত প্রশ্নের লিখিত উত্তরে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ তথ্য জানান।

মোমেন বলেন, যেসব দেশে বাংলাদেশের চ্যান্সারি কমপ্লেক্স নির্মাণের প্রয়োজনীয়তা রয়েছে সেসব দেশে চ্যান্সারি কমপ্লেক্স নির্মাণ/ক্রয়ের নিমিত্তে স্ট্যান্ডার্ড ডিজাইনভিত্তিক একটি বৃহৎ পরিকল্পনা প্রণয়ন করে পর্যায়ক্রমে বাস্তবায়ন করা হবে।
 
বিদেশে বাংলাদেশ মিশনগুলোর প্রস্তাব এবং দূতাবাসগুলোর কূটনৈতিক গুরুত্ব বিবেচনায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বাংলাদেশের নিজস্ব জমিতে ভবন নির্মাণ/নিজস্ব জমি না থাকলে জমি ক্রয় করে ভবন নির্মাণ/আর্থিকভাবে সাশ্রয়ী হলে জমিসহ তৈরি ভবন ক্রয়ের জন্য একটি তালিকা প্রণয়ন করা হয়েছে। ২০১৬ সাল থেকে ২০২৪ সাল পর্যন্ত তিনটি পর্যায়ে তা বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। এ সময়ের মধ্যে ৩১টি মিশনে নিজস্ব চ্যান্সারি ও রাষ্ট্রদূত ভবন নির্মাণ/ক্রয়ের পরিকল্পনা রয়েছে। এরইমধ্যে প্রথম পর্যায়ে রিয়াদ ও টোকিওতে নিজস্ব চ্যান্সারি ও রাষ্ট্রদূত ভবন নির্মাণ সমাপ্ত হয়েছে।

কোপেনহেগেন, রোম, লস অ্যাঞ্জেলেসে চ্যান্সারি ভবন ও রাষ্ট্রদূত ভবন ক্রয় করা হয়েছে। আঙ্কারা, বন্দরসেরি বেগওয়ান, ইসলামাবাদ, থিম্পু, বার্লিন, রিয়াদ ও জেদ্দাতে নিজস্ব জমিতে ভবন নির্মাণের প্রকল্প চলমান রয়েছে।

 আরও পড়ুন>> ডিজেল পাচাররোধে নজরদারি বাড়ানো হয়েছে

এছাড়াও লিসবন, ভিয়েনা, এথেন্স, কায়রো, হেগ, পুত্রজায়া, ক্যানবেরা, বেইজিংসহ আরও কয়েকটি স্থানে প্রকল্প গ্রহণ ও তৈরি ভবন/জমি ক্রয়ের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে সংসদে জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৪৮ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ০২, ২০২০
এসই/জেডএস

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   সংসদ অধিবেশন
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-02-02 18:50:16