bangla news

স্কুলে অতিরিক্ত সেশন ফি আদায় বন্ধ না হলে ধর্মঘট

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০১-২৮ ৬:৫৪:১২ পিএম
অতিরিক্ত সেশন ফি বন্ধের দাবিতে বগুড়া প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন। ছবি: বাংলানিউজ

অতিরিক্ত সেশন ফি বন্ধের দাবিতে বগুড়া প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন। ছবি: বাংলানিউজ

বগুড়া: বগুড়ায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে অতিরিক্ত সেশন ফি আদায় বন্ধ না হলে অভিভাবকদের নিয়ে অভিযুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর সামনে অবস্থান ধর্মঘট পালনের ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৮ জানুয়ারি) দুপুর ১টার দিকে বগুড়া প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে অভিভাবকদের পক্ষ থেকে জেলা ট্রাক মালিক সমিতির সভাপতি আব্দুল মান্নান আকন্দ এ কর্মসূচির ঘোষণা করেন। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত অভিভাবকদের মধ্যে মোছা. রুনা খাতুন নামে এক অভিভাবকও বক্তৃতা করেন।

সংবাদ সম্মেলনে আব্দুল মান্নান আকন্দ জানান, ধারাবাহিক আন্দোলন কর্মসূচির প্রথম দিন বুধবার (২৯ জানুয়ারি) সকালে শহরের জয়পুরপাড়ায় অবস্থিত টিএমএসএস পাবলিক স্কুল ও কলেজের সামনে অবস্থান ধর্মঘট পালন করা হবে। এরপর একে একে অন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সামনেও একই কর্মসূচি পালন করা হবে।

সংবাদ সম্মেলনে আব্দুল মান্নান আকন্দ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে অতিরিক্ত সেশন ফি আদায় বন্ধে ছয় মাসেরও বেশি সময় ধরে উচ্চ আদালতে আইনী লড়াইসহ অভিভাবকদের নিয়ে আন্দোলন চালিয়ে আসার কথা উল্লেখ করেন। 

তিনি বলেন, ২০১৯ সালের ২ জুলাই আমার একটি রিটের পরিপ্রেক্ষিতে উচ্চ আদালত বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোকে মন্ত্রণালয় প্রণীত নীতিমালা অনুযায়ী নির্ধারিত ভর্তি ও সেশন ফি আদায়ের নির্দেশ দেন। গত বছরের ১৭ ডিসেম্বরের ওই আদেশ কার্যকরের জন্য একই বছরের ২৯ ডিসেম্বর বগুড়া জেলা প্রশাসকের দফতরে স্মারকলিপি দেওয়া হয়। ওই একই বিষয়ে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণের আবেদন জানিয়ে রফিকুল ইসলাম ও জাহেদুর রহমান নামে দুই অভিভাবক  ৩০ ডিসেম্বর প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে আবেদন করেন। তার পরিপ্রেক্ষিতে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের পরিচালক মোহাম্মদ রফিকুল আলম শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিবকে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ এবং দেশের সকল জেলায় এ সংক্রান্ত নীতিমালা বাস্তবায়ন পূর্বক একটি প্রতিবেদন দাখিলের অনুরোধ জানিয়ে গত ১৬ জানুয়ারি একটি চিঠি দেন।  

আব্দুল মান্নান অভিযোগ করেন বলেন, প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের ওই নির্দেশনা পাওয়ার পরেও বগুড়ার সব বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো নির্ধারিত দু’হাজার টাকার অতিরিক্ত সেশন ফি আদায় করছে। 

এতে অভিভাবকরা হতাশ হয়ে পড়েছেন উল্লেখ করে তিনি বলেন, এত কিছুর পরেও জেলা প্রশাসক কোন তড়িৎ ব্যবস্থা গ্রহণ করছেন না। 

তিনি এ ব্যাপারে সাংবাদিকদের সহযোগিতা কামনা করে বলেন, বগুড়ার কোন কোন প্রতিষ্ঠান অতিরিক্ত ফি আদায় করছে তা আপনারা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দৃষ্টি গোচর করুন।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৫৪ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৮, ২০২০
কেইউএ/এবি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   ধর্মঘট বগুড়া
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-01-28 18:54:12