bangla news

অসহায় তিন পরিবারের পাশে ঈশ্বরদীর ইউএনও   

উপজেলা করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০১-২৩ ৫:২৫:৪৩ এএম
অসহায়ের পাশে ইউএনও শিহাব রায়হান। ছবি: বাংলানিউজ

অসহায়ের পাশে ইউএনও শিহাব রায়হান। ছবি: বাংলানিউজ

ঈশ্বরদী (পাবনা): ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্তরা খোলা আকাশের নিচে নিজেদের শেষ সম্বল হারিয়ে হতবাকের মতো দাঁড়িয়ে রয়েছেন। ঠিক সেই মুহূর্তে অসহায় মানুষের পাশে গিয়ে দাঁড়ালেন ঈশ্বরদী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শিহাব রায়হান।  

বুধবার (২২ জানুয়ারি) খবর পেয়ে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে ঘটনাস্থলে পৌঁছে  উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে তিনটি অসহায় পরিবারকে শুকনো খাবার, শীতবস্ত্র দিয়ে সহযোগিতা করেন তিনি। এর আগে সন্ধ্যায় উপজেলার সাহাপুর ইউনিয়নের বাঁশেরবাদা গ্রামে এ ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের  ঘটনা ঘটে।             
অসহায় তিনটি পরিবারের সদস্যদের বরাত দিয়ে সাহাপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মতলেবুর রহমান মিনহাজ ফকির বাংলানিউজকে জানান, সাহাপুর ইউনিয়নের বাঁশেরবাদা নামক গ্রামে সন্ধ্যায় হঠাৎ আগুন লাগে। আগুনে তিনটি বাড়ি পুড়ে ছাই হয়ে যায়। কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। তবে পরনের কাপড় ছাড়া কিছুই বের করতে পারেননি ওইসব পরিবারের সদস্যরা। ঘরের সমস্ত  আসবাবপত্র ও গবাদিপশু পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। তাদের প্রত্যেকের প্রায় লাখ টাকার মতো ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

অসহায় ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্য সন্টু প্রামাণিক (৫৫) বাংলানিউজকে জানান পরনের কাপড় ছাড়া কিছুই নাই। মাথা গোঁজার ঠাঁই বলতে আর কিছুই রইলো না। ঘরের সব পুড়ে গেছে। আগুন পথের ফকির বানিয়ে দিয়েছে।

ঈশ্বরদী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শিহাব রায়হান  বাংলানিউজকে বলেন, খবর পেয়েই ছুটে যাই অসহায় ওই পরিবারের পাশে। ঈশ্বরদী উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ৮০ কেজি শুকনো খাবার, ২০টি কম্বল দেওয়া হয়েছে। জেলা পরিষদের থেকে সহযোগিতা পেলে টিন ও নগদ টাকা দেওয়া হবে। 

তিনি আরও জানান, তিনটি অসহায় পরিবারের মধ্যে একটি পরিবারের সবাই শারীরিক প্রতিবন্ধী। ঈশ্বরদী উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তাকে বিষয়টি অবগত করা হয়েছে। তাদের প্রত্যেককে 'প্রতিবন্ধী ভাতা' দেওয়ার ব্যবস্থা করা হবে। 

বাংলাদেশ সময়: ০৫২২ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৩, ২০২০ 
আরএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   পাবনা আগুন
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-01-23 05:25:43