bangla news

দেড় বছরে ৩৭ লাখের বেশি অভিযোগ দুদকে

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০১-২২ ৮:০৪:২৫ পিএম
সিরাজগঞ্জে গণশুনানিতে দুদক কমিশনার আমিনুল ইসলাম/ছবি: বাংলানিউজ

সিরাজগঞ্জে গণশুনানিতে দুদক কমিশনার আমিনুল ইসলাম/ছবি: বাংলানিউজ

সিরাজগঞ্জ: দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) কমিশনার (তদন্ত) এ এফ এম আমিনুল ইসলাম বলেছেন, দুর্নীতি একটি সামাজিকব্যাধী। এটা থেকে মানুষকে বেরিয়ে আসতে হবে। দক্ষিণ এশিয়ার মানুষ ধর্মভীরু অথচ এখানকার লোকজনই বেশি দুর্নীতি করে।

দুর্নীতিবাজদের সৃষ্টিকর্তার কাছে ক্ষমা চাওয়ার আগে জনগণের কাছে ক্ষমা চাইতে হবে। তবেই আল্লাহপাকের কাছে ক্ষমা পেতে পারেন বলেও মন্তব্য করেন এ দুদক কমিশনার।

বুধবার (২২ জানুয়ারি) দুদক সমন্বিত (সিরাজগঞ্জ-পাবনা) কার্যালয়ের আয়োজনে সিরাজগঞ্জ শহরের শহীদ এম মনসুর আলী অডিটোরিয়ামে আয়োজিত গণশুনানি অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, এ দুর্নীতিই বাংলাদেশের জিডিপি অর্জনের আড়াই থেকে ৩ ভাগ খেয়ে ফেলছে। এটা প্রতিরোধ করতে হবে। নিজ বাড়িতে অতিথি গেলে যেমন আপ্যায়ন করেন, সেভাবেই সেবাগ্রহিতার সঙ্গে সুন্দর আচরণ করে প্রয়োজনীয় সেবা দিতে হবে।

দুদক কমিশনার বলেন, গত দেড় বছরে দুদকে ৩৭ লাখের বেশি অভিযোগ জমা পড়েছে। এর মধ্যে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগই বেশি। যেগুলো আমাদের তদন্ত করার ক্ষমতা নেই, সেগুলো সংশ্লিষ্ট দপ্তরে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।

‘জনতার শক্তি, রুখবে দুর্নীতি’- এ স্লোগানকে সামনে রেখে আয়োজিত গণশুনানি অনুষ্ঠানের আলোচনাসভা পর্বে সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক ড. ফারুক আহম্মেদ।

অনুষ্ঠানে দুর্নীতি দমন কমিশন রাজশাহী বিভাগীয় পরিচালক মোর্শেদ আলম, সিরাজগঞ্জ-পাবনা অঞ্চলের উপ-পরিচালক মোয়াজ্জেম হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবু ইউসুফ ও জেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি হেলাল আহম্মেদ বক্তব্য রাখেন।

আলোচনা সভা শেষে জেলা প্রশাসক ড. ফারুক আহম্মেদের সঞ্চালনায় গণশুনানি শুরু হয়। এতে বিভিন্ন দপ্তরের বিরুদ্ধে করা ৪৩টি অভিযোগ উত্থাপিত হয়। এর মধ্যে তিনটি অভিযোগ আমলে নিয়ে দুদককে তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়। বাকিগুলো ৭ থেকে ১০ কর্মদিবসের মধ্যে বিভাগীয় তদন্তের মাধ্যমে নিষ্পত্তির নির্দেশ দেন দুদক কমিশনার।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৫২ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২২, ২০২০
এসএইচ

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-01-22 20:04:25