ঢাকা, রবিবার, ১৭ শ্রাবণ ১৪২৮, ০১ আগস্ট ২০২১, ২১ জিলহজ ১৪৪২

জাতীয়

খালেদা মুক্তিযোদ্ধাদের হাতকড়া পরিয়ে নির্যাতন করেছেন

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০২৫৬ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২১, ২০২০
খালেদা মুক্তিযোদ্ধাদের হাতকড়া পরিয়ে নির্যাতন করেছেন

জাতীয় সংসদ ভবন থেকে: খালেদা জিয়া যুদ্ধাপরাধীদের মন্ত্রী বানান আর মুক্তিযোদ্ধাদের হাতে হাতকড়া দিয়ে নির্যাতন চালান বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য তোফায়েল আহমেদ।

সোমবার (২০ জানুয়ারি) জাতীয় সংসদের অধিবেশনে রাষ্ট্রপতির ভাষণের উপর আলোচনায় অংশ নিয়ে এ মন্তব্য করেন। এসময় তিনি ২০ জানুয়ারি শহীদ আসাদ দিবসের প্রেক্ষাপট তুলে ধরে স্মৃতিচারণ করেন।

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এসময় অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন।

আলোচনায় অংশ নিয়ে তোফায়েল আহমেদ বলেন, ঐক্যের প্রতীক হিসেবে ৮১ সালে বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার হাতে আমরা আওয়ামী লীগের পতাকা তুলে দিয়েছিলাম। বৈরী অবস্থায় দেশে ফিরে পিতার (বঙ্গবন্ধু) স্বপ্নপূরণের কাজে তিনি হাত দেন। ২১ বছর সংগ্রাম করে ৯৬ সালে প্রথম আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় নিয়ে আসেন শেখ হাসিনা। আর ২০০১ সালে বিএনপি-জামায়াত জোট ক্ষমতায় এসে খালেদা জিয়া যুদ্ধাপরাধীদের মন্ত্রী বানান, আর আমাদের কারাগারে বন্দি করে নির্যাতন করেন।  

শহীদ আসাদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে তোফায়েল আহমেদ বলেন, ১৯৬৯ সালের ২০ জানুয়ারি শহীদ আসাদের রক্তের ওপর দাঁড়িয়ে গণঅভ্যুত্থান করে বঙ্গবন্ধুকে আমরা কারাগার থেকে মুক্তি করেছিলাম। কিন্তু দিনটি ইতিহাসের পাতায় স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকলেও আমরা যথাযথভাবে পালন করি না। পৃথিবীতে অনেক নেতা আসবেন, যাবেন, কিন্তু জাতির পিতার মতো বিচক্ষণ নেতা বিরল।  

‘কারাগার থেকে মুক্ত করে এনে পল্টনের ১০ লক্ষাধিক মানুষের সমাবেশ থেকে আমরা জাতির পিতাকে কৃতজ্ঞচিত্তে বঙ্গবন্ধু উপাধিতে ভূষিত করেছিলাম। পাকিন্তানের হানাদাররা বঙ্গবন্ধুর কারাগারের সামনে কবর খুঁড়ে রেখেছিল, কিন্তু বঙ্গবন্ধু বলেছিলেন, মৃত্যুর ভয় করি না, বাঙালি জাতি হাসতে হাসতে জীবন দেবে, বাংলাদেশ স্বাধীন হবেই।  

বাংলাদেশ সময়: ২১৫২ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২০, ২০২০
এসকে/এএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa