ঢাকা, শনিবার, ৩০ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৫ আগস্ট ২০২০, ২৪ জিলহজ ১৪৪১

জাতীয়

শ্রদ্ধা আর ভালোবাসায় শহীদ আসাদকে স্মরণ

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২২৩২ ঘণ্টা, জানুয়ারী ২০, ২০২০
শ্রদ্ধা আর ভালোবাসায় শহীদ আসাদকে স্মরণ

নরসিংদী: শ্রদ্ধা আর ভালোবাসায় ৬৯ এর গণঅভ্যুত্থানের মহানায়ক শহীদ আসদকে স্মরণ করেছেন নরসিংদীর বিভিন্ন শ্রেণীপেশার মানুষ। 

দিবসটি উপলক্ষে সোমবার (২০ জানুয়ারি) সকালে শহীদ আসাদের নিজ বাড়ি শিবপুরের ধানুয়ায় সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠন।  

এদিন সকাল ১০টা থেকে ১১টা পর্যন্ত আসাদের কবরে ফুল দেওয়াসহ তার মাগফেরাত কামনা করে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

এছাড়া শহীদ আসাদ গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজ এবং সরকারি শহীদ আসাদ কলেজের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা জানানোর পাশাপাশি নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানে আসাদ স্মরণে আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়া শহীদ আসাদ ব্লাড ব্যাংক ফাউন্ডেশন কর্তৃক ফ্রি ব্লাড গ্রুপিং করা হয়।

শহীদ আসাদের সমাধিস্থলে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন, নরসিংদী ৩ শিবপুর আসনের সংসদ সদস্য জহিরুল হক ভূঁইয়া মোহন, নরসিংদী জেলা বিএনপির সহ সভাপতি মঞ্জুর এলাহী, শিবপুর সরকারি শহীদ আসাদ কলেজের অধ্যক্ষ (ভারপ্রাপ্ত) প্রফেসর মো. মতিউর রহমান, শিবপুর শহীদ আসাদ কলেজিয়েট গার্লস হাইস্কুল অ্যান্ড কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ ও ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আবুল হারিছ রিকাবদার, কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন শ্যামল, সাবেক সাধারণ সম্পাদক আকরামুল হাসান মিন্টু, আব্দুল মান্নান ভূঁইয়া পরিষদ, নরসিংদী জেলা ছাত্রদল, শিবপুর উপজেলা ছাত্রদল, শিবপুর সরকারি শহীদ আসাদ কলেজ শাখা ছাত্রলীগ ও ছাত্রদল, বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশন, জাতীয় মুক্তি কাউন্সিল, শিবপুর আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজসহ বিভিন্ন সংগঠন ও প্রতিষ্ঠান।

শিবপুর সরকারি শহীদ আসাদ কলেজে আলোচনাসভায় উপস্থিত ছিলেন- শহীদ আসাদের ছোট ভাই ডা. এ এম নূরুজ্জামান নুর, কলেজের অধ্যক্ষ (ভারপ্রাপ্ত) প্রফেসর মো. মতিউর রহমানসহ কলেজের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীবৃন্দ।

আলোচনাসভায় বক্তারা বলেন, শহীদ আসাদকে ভুলে যেতে বসেছে আমাদের প্রজন্ম। আমাদের কলেজটি শহীদ আসাদের নামে নামকরণ হয়েছে। কিন্তু আমাদের মধ্যে অনেকেই আসাদের বাড়ি কোথায়, আসাদ কে, কী তার অবদান তা কিছুই জানে না। এটা আমাদের জন্য লজ্জার। তরুণ প্রজন্মের অহঙ্কার শহীদ আসাদ। তার বীরত্বগাথা ইতিহাস সামনে এগিয়ে চলার অনুপ্রেরণা হিসেবে কাজ করবে তরুণ প্রজন্মের কাছে। তাই শহীদ আসাদের জীবনীসহ তার পুরো ইতিহাস পাঠ্যপুস্তকে লিপিবদ্ধ করা হোক।

শহীদ আসাদ ১৯৪২ সালের ১০ জুন জন্মগ্রহণ করেন। তার গ্রামের বাড়ি নরসিংদীর শিবপুর থানার ধানুয়া গ্রামে। বাবার নাম মোহাম্মদ আবু তাহের। তিনি ১৯৬০ সালে মেট্রিক এবং ১৯৬৩ সালে ইন্টারমিডিয়েট পাস করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হন। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে থেকে ইতিহাসে সম্মানসহ এমএ পাস করেন। ১৯৬৯ এর এই দিনে ঢাকার রাজপথে ছাত্র সংগ্রাম পরিষদের ডাকে আন্দোলনে অংশগ্রহণ করে পুলিশের গুলিতে নিহত হয় আমান উল্লাহ মোহাম্মদ আসাদ। সেই থেকে দিবসটি শহীদ আসাদ দিবস হিসেবে পালিত হয়ে আসছে।  

বাংলাদেশ সময়: ১৭২৭ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২০, ২০২০
আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa