bangla news

ঝালকাঠিতে বিয়ের অনুষ্ঠানের খাবার খেয়ে অসুস্থ শিশুসহ অর্ধশত

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০১-২০ ১:৩৯:৩১ এএম
ঝালকাঠিতে বিয়ের অনুষ্ঠানের খাবার খেয়ে অসুস্থ শিশুসহ অর্ধশত। ছবি- বাংলানিউজ

ঝালকাঠিতে বিয়ের অনুষ্ঠানের খাবার খেয়ে অসুস্থ শিশুসহ অর্ধশত। ছবি- বাংলানিউজ

ঝালকাঠি: ঝালকাঠিতে বিয়ের অনুষ্ঠানের খাবার খেয়ে শিশুসহ প্রায় অর্ধশত মানুষ অসুস্থ হয়ে পড়েছেন বলে জানা গেছে। অসুস্থদের মধ্যে অনেকেই বর্তমানে সদর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি হয়েছেন।

রোববার (১৯ জানুয়ারি) দুপুরে ঝালকাঠির নলছিটি উপজেলার প্রতাপ গ্রামে একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে খাবার খাওয়ার পর গণহারে ওই অসুস্থতার ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, রোববার দুপুরে প্রতাপ গ্রামের বাসিন্দা নজরুল ইসলামের বাড়িতে তার বিয়ের (বৌ-ভাত) অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে বর ও কনে পক্ষের আত্মীয়-স্বজন ও এলাকার লোকজন মিলিয়ে প্রায় আড়াইশ’ নিমন্ত্রিত অতিথি অংশ নেন। ওই অনুষ্ঠানের খাবার খাওয়ার ২ ঘণ্টা পর থেকেই একে একে বমি ও পেটের ব্যথায় অসুস্থ হয়ে পড়েন অনেক অতিথি। তাদের মধ্যে প্রায় ২৫ জনের মতো ঝালকাঠি ও বাকিদের বরিশালের শের-ই বাংলা হাসপাতালসহ বিভিন্ন হাসপাতাল-ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে।

রান্নায় সমস্যা হওয়ার কারণে এমনটা ঘটেছে বলে দাবি বরের বোন শারমিন আক্তারের। 

খাদিজা বেগম নামে এক নারী জানান, দুপুরে তার স্বামী ও মেয়ে নজরুল ইসলামের বিয়ের অনুষ্ঠানে খাবার খেয়ে বাসায় যাওয়ার কিছুক্ষণ পর অসুস্থ হয়ে পড়েন। বমি ও পেটে ব্যথা করলে, তাদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। হাসপাতালে গিয়ে দেখতে পান ওই অনুষ্ঠানে যাওয়া আরও অনেকেই সেখানে একই সমস্যার কারণে ভর্তি হয়েছেন।

ঝালকাঠি সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক সিয়াম আহসান জানান, খাবারে সমস্যার কারণে সবাই অসুস্থ হয়েছে বলে প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে। এখন পর্যন্ত সদর হাসপাতালে ২৫ জন ভর্তি হয়েছেন। তাদের অবস্থা পর্যবেক্ষণ করে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তবে একসঙ্গে অনেক রোগী ভর্তি হওয়ায় চিকিৎসা দিতে হিমশিম খেতে হচ্ছে বলে জানান তিনি।

বাংলাদেশ সময়: ০১৩৮ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২০, ২০২০
এমএস/এইচজে

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2020-01-20 01:39:31