bangla news

ফরিদপুরে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ একাধিক মামলার আসামি নিহত

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০১-১৫ ১০:৪৪:১৯ এএম
এনায়েত হোসেনের নিথর দেহ। ছবি: বাংলানিউজ

এনায়েত হোসেনের নিথর দেহ। ছবি: বাংলানিউজ

ফরিদপুর: ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলায় পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ১৩  মামলার আসামি এনায়েত হোসেন (৩০) নিহত হয়েছেন।

মঙ্গলবার (১৪ জানুয়ারি) দিনগত রাত ৩টার দিকে উপজেলার শেখর ইউনিয়নের বারাংকুল গ্রামে এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। নিহত এনায়েত একই উপজেলার চতুল ইউনিয়নের বনচাকি গ্রামের মৃত মুজিবর হোসেনের ছেলে।

ফরিদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. জামাল পাশা বাংলানিউজকে জানান, হত্যা, ডাকাতি, ধর্ষণসহ ১৩টি মামলার আসামি এনায়েতকে গ্রেফতারের পর তার দেওয়া তথ্য অনুযায়ী অস্ত্র উদ্ধারের জন্য মঙ্গলবার রাতে ওই বাগানে অভিযান চালানো হয়। অভিযান চলাকালে এনায়েতের সহযোগীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়েন। এ সময় পুলিশের কাছ থেকে ছুটে দৌড়ে পালিয়ে যান এনায়েত। হামলাকারীদের লক্ষ্য করে পুলিশও পাল্টা গুলি ছুড়লে তারা পালিয়ে যায়। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ একটি ওয়ান শুটার গান, দুইটি শর্টগানের গুলি, দুইটি শর্টগানের কার্তুজ, একটি চাপাতি ও একটি চাইনিজ কুড়াল উদ্ধার করা হয়।পরে স্থানীয়দের সহায়তায় বাগান থেকে গুলিবিদ্ধ এনায়েতকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে দায়িত্বরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

বোয়ালমারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিনুর রহমান জানান, এনায়েত হোসেনের বিরুদ্ধে থানাসহ বিভিন্ন জেলায় ডাকাতি, দস্যুতা, অস্ত্র, খুন, ধর্ষণসহ মোট ১৩টি মামলা রয়েছে। চলতি বছরের ১৪ জানুয়ারি ঝিনাইদহের শৈলকুপার হাটফাজিলপুর বাজার এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

বাংলাদেশ সময়: ১০৩৮ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৫, ২০২০/আপডেট: ১২৪৬
এএটি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   বন্দুকযুদ্ধ ফরিদপুর
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-01-15 10:44:19