ঢাকা, বুধবার, ২১ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৫ আগস্ট ২০২০, ১৪ জিলহজ ১৪৪১

জাতীয়

আকাশে ওড়ার স্বপ্ন পূরণ হলো ২০ সুবিধাবঞ্চিত শিশুর

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০১-১৫ ০৮:৫৩:৪০ এএম
আকাশে ওড়ার স্বপ্ন পূরণ হলো ২০ সুবিধাবঞ্চিত শিশুর স্বপ্ন পূরণ হলো ২০ সুবিধাবঞ্চিত শিশুর: ছবি-বাংলানিউজ

কক্সবাজার থেকে: ওরা ২০ জন ক্ষুদে স্টার। সবাই সমাজের সুবিধাবঞ্চিত মেধাবী শিক্ষার্থী। পড়াশোনা করছে জাগো ফাউন্ডেশন স্কুলের ষষ্ঠ শ্রেণিতে। অনেকে তরুণ বয়সেও উড়োজাহাজে চড়তে পারে না, কিন্তু সেই সুবিধাবঞ্চিত ২০ ক্ষুদে স্টার ১০-১২ বছর বয়সে প্লেনে চড়ার রোমাঞ্চকর অভিজ্ঞতা অর্জন করেছে। আর আকাশে ওড়ার সেই স্বপ্ন পূরণ করেছে দেশের অন্যতম বেসরকারি উড়োজাহাজ সংস্থা নভোএয়ার। 

মঙ্গলবার (১৪ জানুয়ারি) সকাল ১০টায় ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ভিকিউ ৯২১ যোগে কক্সবাজারের উদ্দেশ্যে রওনা দেয় জাগো ফাউন্ডেশন স্কুলের রায়ের বাজার শাখার ষষ্ঠ শ্রেণির শিক্ষার্থীরা।  

জাগো ফাউন্ডেশন সমাজের সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের নিয়ে কাজ করে।

নভোএয়ারের মাধ্যমে তাদের সেই স্বপ্নপূরণ করেছেন ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা করভি রাকশান্দ।  

প্রায় ৫৫ মিনিট আকাশে উড়ে ১১টায় কক্সবাজার বিমানবন্দরে অবতরণ করে প্লেনটি। সেখান থেকে ক্ষুদে শিক্ষার্থীরা যায় কক্সবাজার সমুদ্র সৈকত ও রেডিয়েন্ট ফিশ ওয়ার্ল্ড। সারাদিন পৃথিবীর দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকতের অনিন্দ্য সুন্দর প্রকৃতি উপভোগ করে এই ক্ষুদে শিক্ষার্থীরা। পরে রেডিয়েন্ট ফিশ ওয়ার্ল্ডে আনন্দঘন সময় কাটায়। সেখানে বহু প্রজাতির সামুদ্রিক মাছ দেখে বিমোহিত হয় ক্ষুদে স্টাররা। সারাদিন কক্সবাজারে আনন্দঘন সময় কাটিয়ে বিকাল সাড়ে ৪টার ফ্লাইটে ঢাকায় ফিরে শিশুরা।  

স্বপ্ন পূরণ হলো ২০ সুবিধাবঞ্চিত শিশুর: ছবি-বাংলানিউজস্বপ্ন স্বপ্ন পূরণের অনুভুতি প্রকাশ করে ক্ষুদে শিক্ষার্থী তামজিদ ইসলাম বলেন, ‘প্লেনে করে দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকতে ঘুরতে যাব তা কখনো ভাবিনি। নভোএয়ারের কাছে কৃতজ্ঞ আমাদের এই স্বপ্নটাকে পূরণ করার জন্য। ’ 

আরেক শিক্ষার্থী উম্মে হাবিবা বাংলানিউজকে বলে, মেঘের উপর দিয়ে উড়োজাহাজে করে যাচ্ছি, এটি অসাধারণ অনুভূতি। আমরা বীচে খেলা করেছি, ফিশ ওয়ার্ল্ডে গিয়ে নানা ধরনের মাছ দেখেছি। অনেক মজা করেছি। এই ভ্রমণ আমার স্বপ্নের মতো হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে নভোএয়ারের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মফিজুর রহমান বাংলানিউজকে বলেন, সামাজিক দায়বদ্ধতার অংশ থেকেই নভোএয়ার এ ধরনের উদ্যোগ নিয়েছে। শিশুরাই জাতির ভবিষ্যৎ। তাদেরকে অনুপ্রেরণা দেওয়ার জন্যই আমাদের এই প্রচেষ্টা।  

তিনি আরও বলেন, নভোএয়ার সামাজিক দায়বদ্ধতার অংশ হিসেবে বিনামূল্যে ওষুধ বিতরণ, খেলাধুলাসহ নানা আয়োজন করে থাকে।

বাংলাদেশ সময়: ০৩৫৩ ঘন্টা, জানুয়ারি ১৫, ২০২০
টিএম/ইউবি 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa