bangla news

প্রধানমন্ত্রীর কাছে স্বামী হত্যার বিচার চাইবেন ইব্রাহিমের স্ত্রী

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১০-০৯-০৬ ৭:০২:২০ এএম

স্বামী হত্যার বিচারে সহায়তার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করতে চান নিহত যুবলীগ নেতা ইব্রাহিমের  স্ত্রী রীনা ইসলাম।

ঢাকা: স্বামী হত্যার বিচারে সহায়তার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করতে চান নিহত যুবলীগ নেতা ইব্রাহিমের  স্ত্রী রীনা ইসলাম।

সোমবার টেলিফোনে বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম.বিডি’র কাছে ফোনে তিনি এ অভিব্যক্তি ব্যক্ত করেন। প্রধানমন্ত্রীর সহকারী ব্যক্তিগত সচিবের সঙ্গে এ ব্যাপারে আলোচনা হয়েছে বলেও তিনি জানান।

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করে স্বামী হত্যার প্রকৃত বিচার চাইবেন বলে জানান তিনি।

তিনি বলেন, এমপি শাওন ও তার লোকজন আমাদের ব্ল্যাকমেইল করার চেষ্টা করছে। নিহতের এক ভাই মাছুমকে ইতালি পাঠানো এবং আরেক ভাই মামুনকে ইব্রাহিমের রেখে যাওয়া বিভিন্ন কাজের তদারকির দায়িত্ব দেওয়ার লোভ দেখানো হচ্ছে।

ইব্রাহিমের মতো পরিণতি তার ভাইদেরও হতে পারে বলে তিনি আশঙ্কা করছেন।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, মিডিয়াতে যেসব কথাবার্তা তিনি এবং তার পরিবারের সদস্যরা বলেন তার কোনো কিছুই ভোলায় প্রকাশ করতে দেওয়া হচ্ছে না। সেখানে ইব্রাহিমের ছবি সম্বলিত কোনো পোস্টার লাগাতে দিচ্ছে না এমপি শাওনের লোকজন।

শাওনই খুনি বলে দাবি করে তিনি বলেন, তিনি দায়ী না হলে কেন এই হত্যাকান্ড নিয়ে এত টালবাহানা করেছেন? কেন হত্যার পর লাশ গুম করতে চেয়েছিলেন? গুলিবিদ্ধ ইব্রাহিমকে কেন ঢাকা মেডিকেল কলেজে না নিয়ে সদরঘাটের এক কিনিকে নিয়ে যাওয়া হলো?

উল্লেখ্য, গত ১৩ আগস্ট এমপি শাওনের পিস্তলের গুলিতে ইব্রাহিম নিহত হন। সেদিনই শাওনের গাড়িচালক কালা শেরেবাংলা নগর থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করেন।
 
ইব্রাহিম হত্যার ঘটনায় তার ভাই মাসুম আহমেদ এমপি শাওনসহ আটজনকে আসামি করে ১৮ আগস্ট ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয় ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (উত্তর বিভাগ)।

গোয়েন্দা পুলিশ এমপি নুরুন্নবী শাওনের দেহরক্ষী দেলোয়ার, গাড়িচালক কালাসহ বেশ কয়েকজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করে।

রীনা ইসলাম গোয়েন্দা পুলিশের কাজে অসন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, গোয়েন্দা বিভাগ সাজানো নাটক করছে। তিনি প্রশ্ন তোলেন একটি হত্যাকান্ডের তদন্ত করতে পুলিশ আর কতদিন সময় নেবে? কেনইবা এত সময় ব্যয় হচ্ছে?

বাংলাদেশ সময়: ১৬৪৪ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ০৬, ২০১০

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2010-09-06 07:02:20