ঢাকা, বুধবার, ১০ বৈশাখ ১৪৩১, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১৪ শাওয়াল ১৪৪৫

জাতীয়

রাজশাহীতে চলছে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৩২ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৬, ২০১৯
রাজশাহীতে চলছে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ রাজশাহীতে চলছে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ। ছবি: বাংলানিউজ

রাজশাহী: রাজশাহী মহানগরের নওদাপাড়া আম চত্বর থেকে রাস্তার দুই পাশে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান শুরু করা হয়েছে। 

রাজশাহীর শহীদ এ এইচ এম কামারুজ্জামান চত্বর থেকে নওহাটা ব্রিজ পর্যন্ত অনুমোদিত চারলেন সড়ক প্রকল্প বাস্তবায়নের লক্ষ্যে এ উচ্ছেদ অভিযান শুরু করা হয়।  

বৃহস্পতিবার (২৬ ডিসেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টা থেকে উচ্ছেদ অভিযান শুরু হয়।

তিন দিনব্যাপী এ অভিযান পরিচালনা করা হবে। প্রথম দিন অভিযান চলবে বিকেল ৫টা পর্যন্ত।

রাজশাহী সড়ক ও জনপথ এবং রাজশাহী সিটি করপোরেশনের (রাসিক) যৌথ উদ্যোগে এ অভিযান পরিচালিত হচ্ছে। উচ্ছেদ অভিযানে নেতৃত্ব দিচ্ছেন রাজশাহী সিটি করপোরেশনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সমর কুমার পাল ও রাজশাহী সড়ক ও জনপথ বিভাগের (সওজ) নির্বাহী প্রকৌশলী মোহাম্মদ শামসুজ্জোহা।

অভিযানের শুরুতেই রাজশাহী মহানগরের নওদাপাড়া আম চত্বরে অবস্থিত একটি মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের প্রধান ফটক ও সামনের সীমানা প্রাচীর এস্কেভেটর মেশিন দিয়ে গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়। এরপর উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনাকারী দল বিমানবন্দর সড়ক অভিমুখে অগ্রসর হয়। বর্তমানে উচ্ছেদ অভিযানকারী দলটি বিমানবন্দর থানার অদূরে অবস্থান করছে। এরইমধ্যে নওদাপাড়া আম চত্বর থেকে অর্ধশতাধিক ঘর-বাড়ি ও দোকানসহ বিভিন্ন অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে।

রাজশাহী সিটি করপোরেশনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সমর কুমার পাল বাংলানিউজকে জানান, একমাস আগে এ সড়কের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করার জন্য নোটিশ দেওয়া হয়েছিল। এছাড়া একাধিকবার বিষয়টি জানিয়ে মাইকিং করা হয়। এরপরও যারা এ সড়কের দুই পাশের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করেনি তাদের সেইসব স্থাপনা গুঁড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে।

আগামী ২৮ ডিসেম্বর পর্যন্ত এ সড়কের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান চলবে বলেও জানান ম্যাজিস্ট্রেট সমর।

অভিযানে থাকা রাজশাহী সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মোহাম্মদ শামসুজ্জোহা বাংলানিউজকে বলেন, মহানগরের শহীদ এ এইচ এম কামারুজ্জামান চত্বর থেকে নওহাটা ব্রিজ পর্যন্ত চারলেন সড়ক নির্মাণ কাজ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

প্রথম দিন কামারুজ্জামান চত্বর থেকে অভিযান শুরুর কথা ছিল। তবে শেষ পর্যন্ত আম চত্বর থেকে অভিযান শুরু করা হয়েছে। তারা এখান থেকে নওহাটা ব্রিজ পর্যন্ত উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করবেন। এরপর থেকে আবারও কামারুজ্জামান চত্বর থেকে অভিযান শুরু হবে। আগামী তিন দিনের মধ্যেই মহানগরের কামারুজ্জামান চত্বর থেকে নওহাটা ব্রিজ পর্যন্ত উচ্ছেদ অভিযান শেষ করা সম্ভব হবে বলেও আশা প্রকাশ করেন রাজশাহী সওজ'র নির্বাহী প্রকৌশলী।

রাজশাহী সিটি করপোরেশন সূত্রে জানা গেছে, একনেক অনুমোদিত এ সড়কটি চারলেনে উন্নীতকরণের পর বর্তমানের ৩০ ফুট প্রশস্ত এ রাস্তাটি ৮০ ফুটে উন্নীত করা হবে। রাস্তার দুই পাশে ডিভাইডারসহ ১০ ফুট চওড়া ফুটপাত ও রাস্তার দক্ষিণ পাশে সাড়ে সাত ফুট ড্রেন করা হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৩৩২ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৬, ২০১৯
এসএস/আরআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।