bangla news

এবার দৃশ্যমান হবে পদ্মাসেতু ২৮৫০ মিটার

সাজ্জাদ হোসেন, ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১২-১৭ ৪:৪৬:৫১ পিএম
পদ্মাসেতুর স্প্যান। ছবি: বাংলানিউজ

পদ্মাসেতুর স্প্যান। ছবি: বাংলানিউজ

মুন্সিগঞ্জ: অনুকূল আবহাওয়া ও কারিগরি ত্রুটি দেখা না দিলে বুধবার (১৮ ডিসেম্বর) পদ্মাসেতুর ২১ ও ২২ নম্বর পিলারের উপর বসতে পারে ১৯তম ‘৪-সি’ স্প্যান। জাজিরা ও মাওয়া প্রান্তের মধ্যবর্তী স্থানে ১৯তম স্প্যানটি স্থায়ীভাবে বসানোর মাধ্যমে দৃশ্যমান হবে সেতুর ২ হাজার ৮৫০ মিটার। ১৮তম স্প্যান বসানোর সাত দিনের মাথায় বসতে যাচ্ছে ১৯তম স্প্যানটি। 

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক পদ্মাসেতুর এক প্রকৌশলী জানান, ‘৪-সি’ স্প্যান বর্তমানে মুন্সিগঞ্জের মাওয়া কুমারভোগ কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ডে প্রস্তুত করে রাখা আছে। বুধবার সকাল সাড়ে ৮টায় মাওয়া থেকে ধূসর রংয়ের ১৫০ মিটার দৈর্ঘ্য ও ৩ হাজার ১৪০ টন স্প্যানটিকে নিয়ে যাবে ৩ হাজার ৬০০ টন ধারণক্ষমতার 'তিয়ান-ই' ভাসমান ক্রেন। অনুকূল আবহাওয়া ও কারিগরি কোনো ত্রুটি দেখা না দিলে ৩-৪ ঘণ্টার মধ্যেই স্প্যানটিকে নির্ধারিত পিলারের উপর বসিয়ে দেওয়া সম্ভব হবে। ১৯তম স্প্যান বসিয়ে দৃশ্যমান হবে সেতুর ২ হাজার ৮৫০ মিটার। 

পদ্মাসেতুর প্রকৌশল সূত্রে জানা যায়, পদ্মাসেতুতে মোট ৪২টি পিলারের মধ্যে বর্তমানে কাজ সম্পন্ন হয়েছে ৩৫টির। সেতুতে ২ হাজার ৯৫৯টি রেলওয়ে স্ল্যাব ও ২ হাজার ৯১৭টি রোডওয়ে স্ল্যাব বসবে। পদ্মাসেতুর মোট ৪১টি স্প্যানের মধ্যে চীন থেকে মাওয়ায় এসেছে ৩৩টি স্প্যান। এর মধ্যে ১৮টি স্প্যান স্থায়ীভাবে বসে গেছে। 

৬ দশমিক ১৫ দৈর্ঘ্যের দ্বিতল সেতুটি কংক্রিট ও স্টিল দিয়ে নির্মাণ করা হচ্ছে। চীনের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চায়না রেলওয়ে মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং গ্রুপ কোম্পানি লিমিটেড মূল সেতু নির্মাণের কাজ করছে। 

বাংলাদেশ সময়: ১৬৪৫ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১৭, ২০১৯ 
আরএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   পদ্মাসেতু মুন্সিগঞ্জ
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2019-12-17 16:46:51