bangla news

দিনাজপুরে জেঁকে বসেছে শীত, কমতে শুরু করেছে তাপমাত্রা

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১২-১৪ ৮:৩৮:১১ পিএম
দিনাজপুর আবহাওয়া অধিদপ্তর

দিনাজপুর আবহাওয়া অধিদপ্তর

দিনাজপুর: হিমালয়ের পাদদেশের জেলা দিনাজপুরে জেকে বসেছে শীত। কমতে শুরু করেছে দিন-রাতের তাপমাত্রা। তীব্র ঠাণ্ডার কারণে খেটে খাওয়া মানুষ পড়েছে চরম দুশ্চিন্তায়। আগামী কয়েক দিনে তাপমাত্রা আরও কমতে পারে বলে আভাস দিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। চলতি শীত মৌসুমে ৮ ডিসেম্বর জেলায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ১১ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

দিনাজপুর শহরের শ্রমিকের হাট হিসেবে পরিচিত রয়েছে ষষ্টিতলা মোড়। এ মোড়ে সব প্রকার শ্রমিক দিন হাজিরা ভিত্তিতে কাজ করে থাকেন। ৬০ বছরের বয়স্ক শফিউল ইসলাম নামে এক শ্রমিকের সঙ্গে কথা হয়। তিনি বাংলানিউজকে জানান, কি করিম বাহে। হামরা সারা দিন মানুষের ঠেনা (কাছে) কাজ করি, আর রাইতত (রাতে) বাজার করিয়া বাড়ি লই (নিয়ে) যাই। কিন্তু ঠাণ্ডার ঠেনা (কারণে) কোথাও ঠিক মতন কাজ করিবার পারছু (পারছি) না। এইথেনা (এইখানে) বয়স্ক লোক দেখিলে কেউ কাজে নেবার চাহে না। আইজকা কোন ঠেনা (কোথাও) কাজ না পাইলে মোর (আমার) পরিবার কীভাবে চলিবে।

দিনাজপুর আবহাওয়া অফিস সূত্রে জানা গেছে, গত ৮ ডিসেম্বর দিনাজপুর জেলায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১১ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়। এছাড়াও ৯ ডিসেম্বর ১২ দশমিক ৪ ডিগ্রি, ১০ ডিসেম্বর ১১ দশমিক ৯ ডিগ্রি, ১১ ডিসেম্বর ১১ দশমিক ৭ ডিগ্রি, ১২ ডিসেম্বর ১১ দশমিক ৮ ডিগ্রি, ১৩ ডিসেম্বর ১৪ দশমিক ১ ডিগ্রি ও শনিবার (১৪ ডিসেম্বর) ১৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়।

দিনাজপুর আবহাওয়া অফিসের সিনিয়র পর্যবেক্ষক আব্দুর রশিদ বাংলানিউজকে জানান, হিমালয়ের পাদদেশের জেলা হওয়ায় বৃহত্তর দিনাজপুরের ৩টি জেলা ঠাকুরগাঁও, পঞ্চগড় ও দিনাজপুরে জেকে বসেছে শীত। শনিবার (১৪ ডিসেম্বর) সকাল থেকে জেলায় গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি হওয়ায় শীতের তীব্রতা বেড়েছে। 

আগামী কয়েকদিন গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। একই সঙ্গে তাপমাত্রা আরও কমতে পারে। কয়েক বছর পূর্বে দিনাজপুর জেলায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছিল ৩ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এবার শীতের তীব্রতা বাড়লে তাপমাত্রা ৫ থেকে ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস নামতে পারে।

বাংলাদেশ সময়: ২০০৯ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১৪, ২০১৯
এসএইচ

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-12-14 20:38:11