ঢাকা, শুক্রবার, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৪ আগস্ট ২০২০, ২৩ জিলহজ ১৪৪১

জাতীয়

এলেঙ্গায় ২০ কিলোমিটার যানজট

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২৩১৭ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১৩, ২০১৯
এলেঙ্গায় ২০ কিলোমিটার যানজট

টাঙ্গাইল: ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কের টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার এলেঙ্গা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় ৩০০ মিটার সড়ক সম্প্রসারণের কাজ শুরু হয়েছে। ফলে ওই এলাকায় এক লেনে যানবাহন পারাপার হচ্ছে। এতে করে এলেঙ্গা বাসস্ট্যান্ডের দুই দিকে অন্তত ২০ কিলোমিটার যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে।

সড়ক ও জনপথ বিভাগ সূত্র জানায়, জয়দেবপুর থেকে এলেঙ্গা পর্যন্ত চারলেন সড়ক এলেঙ্গা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় শেষ হয়েছে। চারলেনের পর থেকে বঙ্গবন্ধু সেতু সংযোগ সড়ক পর্যন্ত ৩০০ মিটার সড়ক সম্প্রসারণের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

পাঁচ কোটি ১৬ লাখ টাকা ব্যয়ে এই সড়ক সম্প্রসারণের কাজ তিন সপ্তাহ আগে শুরু হয়েছে। কাজ চলাকালীন সময় যানবাহনের স্বাভাবিক চলাচল ব্যাহত হচ্ছে।

ট্রাফিক পুলিশ বিভাগ জানায়, এলেঙ্গা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় কিছু সময় ঢাকার দিকে গাড়ি চলাচলের সুযোগ দেওয়া হচ্ছে। আবার কিছু সময় ঢাকার দিক বন্ধ রেখে পার করা হচ্ছে বঙ্গবন্ধু সেতুগামী যানবাহন। এরফলে দুই দিকেই যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। এলেঙ্গা বাসস্ট্যান্ড থেকে বঙ্গবন্ধু সেতুর দিকে এবং ঢাকার উভয় দিকেই অন্তত ২০ কিলোমিটার যানজট লেগে থাকছে। ১০ মিনিটের সড়ক পার হতে এক থেকে দেড় ঘণ্টা পর্যন্ত সময় লাগছে।

শুক্রবার (১৩ ডিসেম্বর) দুপুরে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, এলেঙ্গা বাসস্ট্যান্ড থেকে দীর্ঘ গাড়ির সারি আট কিলোমিটার দূরে টাঙ্গাইল সদর উপজেলার বিক্রমহাটি পর্যন্ত এসে পৌঁছেছে। বঙ্গবন্ধু সেতুর দিকেও পাঁচ কিলোমিটারের বেশি যানজট সৃষ্টি হয়েছে।  

সদর উপজেলার বিক্রমহাটি এলাকায় ট্রাক চালক আনোয়ার হোসেন বাংলানিউজকে জানান, টাঙ্গাইল শহর বাইপাসের রাবনা মোড় পার হওয়ার পর থেকেই যানজটে পড়তে হয়েছে। দুই কিলোমিটার রাস্তা অতিক্রম করতে ৪০ মিনিট সময় লেগেছে।

টাঙ্গাইল সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আমিমুল এহসান বাংলানিউজকে জানান, রাস্তার দু’পাশে দুই লেন সম্প্রসারণ করা হচ্ছে। আগামী ১৫/২০ দিনের মধ্যে এই দুই লেনের নির্মাণ কাজ শেষ হবে। পরে মাঝের দু’লেন সড়কের উন্নয়ন করা হবে। সড়ক নির্মাণের কারণে কিছুটা যানজট হলেও এর নির্মাণ কাজ শেষ হলে এলেঙ্গাতে আর যানজট হবে না।

টাঙ্গাইল ট্রাফিক পুলিশের পরিদর্শক (টিআই) রফিকুল ইসলাম সরকার বাংলানিউজকে জানান, এলেঙ্গার যানজট নিরসনের জন্য দুইজন ট্রাফিক পরিদর্শক, আটজন সার্জেন্ট, ছয়জন সহকারী ট্রাফিক সার্জেন্ট ও আটজন কনস্টেবল ওই এলাকায় দায়িত্ব পালন করছে। পাশাপাশি হাইওয়ে পুলিশও রয়েছে। কিন্তু এক লেনে যানবাহন পারাপারের কারণে এ জটের সৃষ্টি হচ্ছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৮১৩ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১৩, ২০১৯
এনটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa