ঢাকা, শনিবার, ১১ আশ্বিন ১৪২৭, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৭ সফর ১৪৪২

জাতীয়

খুলনা-ঢাকা বিরতিহীন ট্রেন সার্ভিস চালুর দাবিতে মানববন্ধন

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯৩১ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৮, ২০১৯
খুলনা-ঢাকা বিরতিহীন ট্রেন সার্ভিস চালুর দাবিতে মানববন্ধন

খুলনা: খুলনা-ঢাকা বিরতিহীন ট্রেন সার্ভিস চালুর দাবিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার (৮ ডিসেম্বর) দুপুরে মহানগরের পিকচার প্যালেস মোড়ে বৃহত্তর খুলনা উন্নয়ন সংগ্রাম সমন্বয় কমিটি এ মানববন্ধনের আয়োজন করে।

মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি শেখ মোশাররফ হোসেন। পরিচালনা করেন মো. মনিরুজ্জামান রহিম ও মো. আফজাল হোসেন রাজু।

এতে বক্তারা বলেন, খুলনা একটি বিভাগীয় শহর হওয়া সত্ত্বেও দেশের অন্য অঞ্চলের তুলনায় দীর্ঘদিন ধরে খুলনা বিভিন্নভাবে অবহেলার স্বীকার হয়ে আসছে।

বক্তারা খুলনা-যশোর রোড ছয় লেনে উন্নীত করা, খুলনা-ঢাকা বিরতিহীন ট্রেন সার্ভিস চালু, শের-এ-বাংলা রোড চার লেনে উন্নীতকরণ কাজ দ্রুত শুরু, ২০১৩ সালে একনেকে অনুমোদিত রূপসা ব্রিজ থেকে রূপসা ঘাট পর্যন্ত চার লেন এবং ২০১৮ সালে অনুমোদিত থ্রি-লিংক রোডের নির্মাণকাজ দ্রুত শুরু, রূপসা ও ভৈবর নদীর তীর ঘেঁষে শহর রক্ষা বাঁধসহ দৃষ্টিনন্দন সৌন্দর্যপূর্ণ রিভার ভিউ রোড নির্মাণ করার জোর দাবি জানান।

বক্তারা আরও বলেন, ১৯৬১ সালে কেডিএ স্থাপিত হলেও আজ পর্যন্ত কেডিএ খুলনার উল্লেখযোগ্য কোনো উন্নয়ন পরিলক্ষিত নয়। কেডিএ চেয়ারম্যান এ এলাকার স্থানীয় প্রতিনিধিদের মধ্য থেকে খুলনা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান নিয়োগ ও সব অনিয়ম দূর করে দুর্নীতিমুক্ত খুলনার উন্নয়নবান্ধব কর্মচাঞ্চল্য খুলনা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ গঠন, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের নিজস্ব অর্থায়নে খানজাহান আলী বিমানবন্দর দ্রুত বাস্তবায়ন (পাবলিক পার্টনারশিপ ভিত্তিতে এ বিমানবন্দর নির্মাণে দীর্ঘ সুত্রিতা ও অনিশ্চয়তার মধ্যে পতিত হবে, যা খুলনাবাসীর কাম্য নয়) এবং খুলনাসহ দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের অর্থনৈতিক উন্নয়ন, শিল্পায়ন ও জ্বালানিবান্ধব শিল্প স্থাপনে অবিলম্বে বিদ্যমান পাইপ লাইনে গ্যাস সরবরাহ, ভোলার দ্বিতীয় কূপ থেকে খুলনায় গ্যাস সরবরাহ করার জন্য পাইপ লাইন স্থাপন, নতুন গ্যাস ক্ষেত্র আবিষ্কারের লক্ষ্যে এ অঞ্চলে দ্রুত জরিপের ব্যবস্থা গ্রহণ করার দাবি জানানো হয়।

মানববন্ধনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- সংগঠনের মহাসচিব শেখ আশরাফ উজ জামান, দাতা পরিষদের সভাপতি শেখ আব্দুল মান্নান, বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ অধ্যক্ষ মো. জাফর ইমাম, উন্নয়ন কমিটির সহ-সভাপতি শাহিন জামাল পন, অধ্যাপক মো. আবুল বাসার, মিনা আজিজুর রহমান, উন্নয়ন কমিটির সাবেক সভাপতি এস এম দাউদ আলী, সিনিয়র নেতা শেখ আবুল কাশেম, অ্যাডভোকেট কুদরত-ই-খুদা, যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোতেট শেখ হাফিজুর রহমান হাফিজ, মো. মিজানুর রহমান বাবু, মো. মিজানুর রহমান জিয়া, মো. রকিব উদ্দিন ফারাজী, মো. বদিয়ার রহমান (শিক্ষক), কাউন্সিলর শেখ মোহাম্মদ আলী, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মো. মিজানুর রহমান টিংকু প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ১৪২৯ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০৮, ২০১৯
এমআরএম/আরবি/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa