ঢাকা, বুধবার, ২১ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৫ আগস্ট ২০২০, ১৪ জিলহজ ১৪৪১

জাতীয়

অর্থাভাবে থমকে গেছে নীলফামারী-সৈয়দপুর সড়ক সম্প্রসারণ কাজ 

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১২-০৪ ০৫:৫৯:৫৫ পিএম
অর্থাভাবে থমকে গেছে নীলফামারী-সৈয়দপুর সড়ক সম্প্রসারণ কাজ  থেমে রয়েছে সড়ক সম্প্রসারণ কাজ। ছবি: বাংলানিউজ

নীলফামারী: অর্থাভাবে থমকে গেছে নীলফামারী-সৈয়দপুর সড়ক সম্প্রসারণ কাজ। একই কারণে অধিগ্রহণ করা জমির মালিকদেরও টাকা দিতে পারছে না জেলা প্রশাসন। ফলে সড়ক সম্প্রসারণ কাজ নিয়ে দেখা দিয়েছে অনিশ্চয়তা।

সূত্র জানায়, নীলফামারী-সৈয়দপুর সড়ক সম্প্রসারণ ও মজবুতিকরণ কাজের জন্য ২২৫ কোটি টাকার প্রকল্প অনুমোদন করেন একনেক সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ২০১৭ সালের নভেম্বরে প্রত্যাশিত প্রকল্পটি অনুমোদিত হয়।

এ সড়কের ১৫ কিলোমিটার সড়ক সম্প্রসারণে জমি অধিগ্রহণ করা হয়। কিন্ত অর্থাভাবে অধিগ্রহণ করা মালিকদের টাকা দিতে পারছে না জেলা প্রশাসন। এ নিয়ে এলাকাবাসী কয়েক দফা মানববন্ধন করলেও আশার বাণী ছাড়া কিছুই পায়নি।  

এ প্রসঙ্গে জেলা প্রশাসক হাফিজুর রহমান চৌধুরী জানান, আমাদের কাছে পর্যাপ্ত বরাদ্দ নেই। প্রথম ফেইজের ৪৯ কোটি টাকা রয়েছে যা দিয়ে দ্বিতীয় ফেইজের ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে দেওয়া যাচ্ছে না। তাদের দিতে আরও ২৪ কোটি টাকা প্রয়োজন। নতুনভাবে বরাদ্দ পাওয়া গেলে দ্রুত ক্ষতিপূরণের টাকা দেওয়া শুরু হবে।  থেমে রয়েছে সড়ক সম্প্রসারণ কাজ।  ছবি: বাংলানিউজ

সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মুহাম্মদ মনজুরুল করিম জানান, প্রকল্প ব্যয় বৃদ্ধি পাওয়ায় ৩১৩ কোটি টাকার একটি নতুন প্রকল্প পরিকল্পনা কমিশনে পাঠানো হয়েছে। সেটি পাস হলে ক্ষতিপূরণের জন্য জেলা প্রশাসনকে প্রয়োজনীয় বরাদ্দ দেওয়া হবে।

এদিকে সড়ক সম্প্রসারণের কাজ থমকে যাওয়ায় চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে ওই পথে চলাচল করা যানবাহন ও লোকজনের।  

বাংলাদেশ সময়: ১২৫৬ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০৪, ২০১৯
আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa