bangla news

জয়পুরহাটে পেট্রোল পাম্পে ধর্মঘট ২য় দিনে, ভোগান্তি

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১২-০২ ৯:৫৮:৩০ এএম
ধর্মঘটের কারণে বন্ধ থাকা একটি পেট্রোল পাম্প। ছবি: বাংলানিউজ

ধর্মঘটের কারণে বন্ধ থাকা একটি পেট্রোল পাম্প। ছবি: বাংলানিউজ

জয়পুরহাট: তেল বিক্রির কমিশন বৃদ্ধি, পেট্রোল পাম্প সংলগ্ন জমির ইজারা বাতিলসহ ১৫ দফা দাবিতে জয়পুরহাটে দ্বিতীয় দিনের মতো সব পেট্রোল পাম্পে চলছে অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট। ফলে ভোগান্তিতে পড়েছেন পরিবহন চালকরা। 

সোমবার (০২ ডিসেম্বর) সকালেও এ কর্মসূচির অংশ হিসেবে জেলার সব পাম্পে জ্বালানি তেল বিক্রি বন্ধ রাখা হয়েছে।

এর আগে, রোববার (০১ ডিসেম্বর) ভোর থেকে ট্যাংকলরি মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদ, জ্বালানি তেল পরিবেশক সমিতি, পেট্রোল পাম্প মালিক সমিতিসহ জ্বালানি ব্যবসায়ীরা এ কর্মবিরতি শুরু করেন।

জানা গেছে, ধর্মঘটের কারণে রোববার ভোর থেকে জয়পুরহাটের পাঁচটি উপজেলার কোনো পেট্রোল পাম্প থেকে জ্বালানি তেল সরবরাহ করা হয়নি। ফলে জ্বালানি তেল না পেয়ে যানবাহন চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। 

জয়পুরহাট সদরের উদয়ন পেট্রোল পাম্পে ডিজেল নিতে আসা পল্লী বিদ্যুৎ এলাকার কৃষক জালাল উদ্দীন বাংলানিউজকে বলেন, আগাম জাতের আলু লাগিয়েছি। আলুর জমিতে শ্যালো পাম্পের মাধ্যমে পানি দিতে হবে। কিন্তু ডিজেল না পেয়ে শ্যালো বন্ধ রাখতে হচ্ছে। এতে করে আলুর জমিতে পানিও দিতে পারছি না।

শুধু পল্লী বিদ্যুৎ এলাকার কৃষক জালাল উদ্দীনই নয়, ধর্মঘটের কারণে বন্ধ থাকা ফিলিং স্টেশনগুলো থেকে তেল না পেয়ে ভোগান্তিতে পড়েছেন পবিহন চালকসহ বিভিন্ন কাজে জ্বালানি ব্যবহারকারীরা। 

জয়পুরহাট তাজ ফিলিং স্টেশনের ম্যানেজার মিঠু মিয়া বাংলানিউজকে বলেন, ১৫ দফা দাবি না মানা পর্যন্ত কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্ত মোতাবেক এ ধর্মঘট অব্যাহত থাকবে। 

দাবিগুলো হলো- জ্বালানি তেল বিক্রির প্রচলিত কমিশন কমপক্ষে সাড়ে ৭ শতাংশ করা; জ্বালানি তেল ব্যবসায়ীরা কমিশন এজেন্ট না-কি উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান-বিষয়টি সুনির্দিষ্টকরণ; প্রিমিয়াম পরিশোধ সাপেক্ষে ট্যাংকলরি শ্রমিকদের পাঁচ লাখ টাকা দুর্ঘটনা বীমা প্রথা প্রণয়ন; ট্যাংকলরির ভাড়া বাড়ানো; পেট্রোল পাম্পের জন্য কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান অধিদপ্তরের লাইসেন্স গ্রহণ বাতিল; পেট্রোল পাম্পের জন্য পরিবেশ অধিদপ্তরের লাইসেন্স গ্রহণ বাতিল; পেট্রোল পাম্পে অতিরিক্ত পাবলিক টয়লেট; জেনারেল স্টোর ও ক্লিনার নিয়োগের বিধান বাতিল; সড়ক ও জনপথ বিভাগ পেট্রোল পাম্পের প্রবেশদ্বারের ভূমির জন্য ইজারা গ্রহণের প্রথা বাতিল; ট্রেড লাইসেন্স ও বিস্ফোরক লাইসেন্স ব্যতিত অন্য দপ্তর বা প্রতিষ্ঠান লাইসেন্স গ্রহণের সিদ্ধান্ত বাতিল; বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ড অ্যান্ড টেস্টিং ইনস্টিটিউশন (বিএসটিআই) আন্ডার গ্রাউন্ড ট্যাংক পাঁচ বছর অন্তর বাধ্যতামূলক ক্যালিব্রেশনের সিদ্ধান্ত বাতিল; ট্যাংকলরি চলাচলে পুলিশি হয়রানি বন্ধ; সুনির্দিষ্ট দপ্তর ব্যতিত সরকারি অন্যান্য দাপ্তরিক প্রতিষ্ঠান ডিলার বা এজেন্টদের অযথা হয়রানি বন্ধ; নতুন কোনো পেট্রোল পাম্প নির্মাণের ক্ষেত্রে সংশিষ্ট বিভাগীয় জ্বালানি তেল মালিক সমিতির ছাড়পত্রের বিধান চালু; পেট্রোল পাম্পের পাশে যেকোনো স্থাপনা নির্মাণের আগে জেলা প্রশাসকের অনাপত্তি সনদ গ্রহণ বাধ্যতামূলক ও বিভিন্ন জেলায় ট্যাংকলরি থেকে জোরপূর্বক পৌরসভার চাঁদা গ্রহণ বন্ধ করা।

** জয়পুরহাটে পেট্রোল পাম্পে ধর্মঘট, ভোগান্তিতে যানচালকরা

বাংলাদেশ সময়: ০৯৫৫ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০২, ২০১৯
এসআরএস

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   ধর্মঘট জয়পুরহাট
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-12-02 09:58:30