ঢাকা, বুধবার, ২৪ আষাঢ় ১৪২৭, ০৮ জুলাই ২০২০, ১৬ জিলকদ ১৪৪১

জাতীয়

বরিশাল এক্সপ্রেস চালু হলে আমরা আরও সমৃদ্ধ হবো

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-২৫-১১ ০৭:৪১:২১ পিএম
বরিশাল এক্সপ্রেস চালু হলে আমরা আরও সমৃদ্ধ হবো

বরিশাল: বরিশাল সিটি করপোরেশনের (বিসিসি) মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ বলেছেন, মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় পার্শ্ববর্তী বন্ধুপ্রতীম দেশ ভারতের ভূমিকা ছিল আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। এজন্য তাদের প্রতি আমি কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানাই। স্বাধীনতা পরবর্তী ’৭৫ এর ১৫ আগস্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, আমার দাদা শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত, আমার বড় ভাই সুকান্ত বাবুসহ আমাদের স্বজনদের নির্মমভাবে হত্যা করা হয়। তখন ভারত আমাদের পরিবারকে আশ্রয় দিয়েছিল। যা কোনোদিন ভুলবো না।

সোমবার (২৫ নভেম্বর) বরিশাল নগরের কাশিপুরে নতুন স্থানান্তরিত ভারতীয় ভিসা আবেদন কেন্দ্রের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেয়র এসব কথা বলেন।

সাদিক আব্দুল্লাহ বলেন, বরিশালে এমনও অনেক লোক রয়েছেন যাদের স্বজনরা ভারতে থাকেন।

ভারতীয় ভিসা আবেদন কেন্দ্র নতুন জায়গাতে স্থানান্তরিত হওয়ায় আমি মনে করি, সেবার মান বাড়বে এবং সব সুবিধা আরও ভালোভাবে বরিশালবাসী গ্রহণ করতে পারবেন।

ভারতীয় হাইকমিশনের কর্মকর্তাদের উদ্দেশে তিনি বলেন, এ শহরের সন্তান ও মেয়র হিসেবে বলতে পারি, আমি আপনাদের পাশে থাকবো এবং যেকোনো ধরনের সহযোগিতা করবো। বরিশাল থেকে কলকাতায় সরাসরি বরিশাল এক্সপ্রেস নামে বাস সার্ভিস চালু করতে যে ধরনের কাজ করা প্রয়োজন তা আমরা শুরু করেছি। ভারতীয় হাইকমিশনারের কাছে আমরা একটি আবেদনও দিয়েছি। বরিশাল এক্সপ্রেস চালু হলে আমরা আরও সমৃদ্ধ হবো এবং বন্ধুত্ব গভীরে যাবে।

অনুষ্ঠানে ভারতীয় সহকারী হাইকমিশনার (খুলনা) মি. রাজেশ কুমার রায়না বলেন, বরিশালে দিনে দিনে ভারত ভ্রমণেচ্ছুদের সংখ্যা বাড়ছে। তাদের সুবিধার কথা বিবেচনা করে বৃহৎ পরিসরে নতুন স্থানে ভিসা আবেদন কেন্দ্রের কার্যক্রম সোমবার থেকে চালু করা হয়েছে। এখান থেকে ভারত ভ্রমণেচ্ছু বরিশালের সাধারণ জনগণ উপকৃত হবেন।  

তিনি আরও বলেন, ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে সু-সম্পর্ক রয়েছে। আমরা চেষ্টা করছি, বরিশাল এক্সপ্রেস নামে বরিশাল থেকে কলকাতা সরাসরি বাস সার্ভিস চালু করতে। এর মাধ্যমে বরিশাল থেকে কলকাতার যাতায়াত ব্যবস্থা আরও সহজ হবে।

মি. রাজেশ কুমার রায়না বলেন, বৈধ ভিসায় ভারতে ভ্রমণকারী কোনো বাংলাদেশি নাগরিক ভারতে থাকাকালীন অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে ভারতীয় হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার জন্য প্রাথমিক ভিসাকে মেডিক্যাল ভিসায় রূপান্তর করার প্রয়োজন হবে না। আবার কোনো বিদেশি নাগরিক ভারতে প্রবেশের আগে থেকেই আক্রান্ত এমন রোগের (অঙ্গ প্রতিস্থাপন ছাড়া) ইনডোর মেডিক্যাল ট্রিটমেন্ট প্রাথমিক ভিসাতেই করতে পারবেন।  

অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- বরিশাল মহানগরের পুলিশ কমিশনার মো. শাহাবুদ্দিন খান, বরিশাল সরকারি ব্রজমোহন (বিএম) কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক শফিকুর রহমান সিকদার, বরিশাল সিটি করপোরেশনের প্যানেল মেয়র রফিকুল ইসলাম খোকনসহ ভারতীয় হাইকমিশনের কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি ও স্থানীয় সুশীল সমাজের নেতারা।

এতোদিন ভারতীয় ভিসা আবেদন কেন্দ্রের কার্যক্রম নগরের হাসপাতাল রোডের একটি ভবনে পরিচালিত হতো। তবে ভিসা প্রার্থীর সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় এবং জায়গা সংকটের কারণে সোমবার থেকে এ কেন্দ্রের কার্যক্রম নগরের ২৯ নম্বর ওয়ার্ডের কাশিপুরের ডিআইজি অফিস সংলগ্ন ভবনে আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু করা হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৪৩৫ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৫, ২০১৯
এমএস/আরবি/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa