bangla news

লবণ নিয়ে কারসাজিকারীদের জেল-জরিমানার নির্দেশ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১১-১৯ ৫:৫৯:০৪ পিএম
সচিবালয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে বৈঠকে বাণিজ্যমন্ত্রী ও অন্যরা

সচিবালয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে বৈঠকে বাণিজ্যমন্ত্রী ও অন্যরা

ঢাকা: লবণের দাম বাড়ালে অসাধু ব্যবসায়ীদের জেল-জরিমানা দিতে ভোক্তা অধিকার ও সংরক্ষণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালককে নির্দেশ দিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি। তিনি বলেন, দেশে পর্যাপ্ত লবণ মজুদ রয়েছে। লবণের কোনো সংকট নেই। আমার নির্দেশ আপনারা বাজার মনিটর করেন। লবণ নিয়ে কারসাজি করলে জেল দেওয়ার প্রয়োজন হলে দেন, যাকে জরিমানা করার দরকার করেন। বাজারের দামটা ঠিক রাখেন।

মঙ্গলবার (১৯ নভেম্বর) সচিবালয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে পেঁয়াজের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। এসময় বাণিজ্য সচিব ড. জাফর উদ্দিনসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

লবণের দাম বৃদ্ধির বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, লবণের বিষয়ে ব্যবসায়ীরা অবাস্তব সুযোগ নিচ্ছে, শুধু একটা গুজব ছড়িয়ে। এ বিষয়ে আমি খবর নিয়েছি। লবণ চাষিদের সুবিধার্থে সরকার আমদানি বন্ধ রেখেছে। তারপরেও লবণের দাম বাড়ার কোনো কারণ নেই।

তিনি বলেন, দেশে বর্তমানে সাড়ে ছয় লাখ মেট্রিক টনেরও বেশি ভোজ্য লবণ মজুদ রয়েছে। প্রতি মাসে আমাদের ভোজ্য লবণের চাহিদা থাকে কম-বেশি এক লাখ মেট্রিক টন। অন্যদিকে লবণের মজুদ আছে সাড়ে ছয় লাখ মেট্রিক টন। সে হিসাবে লবণের কোনো সংকট হওয়ার প্রশ্নই ওঠে না।

এদিকে শিল্প মন্ত্রণালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, একটি স্বার্থান্বেষী মহল লবণের সংকট রয়েছে মর্মে গুজব রটনা করে অধিক মুনাফা লাভের আশায় লবণের দাম অস্থিতিশীল করার অপচেষ্টা চালাচ্ছে বলে প্রতীয়মান হচ্ছে। এ ধরনের গুজবে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য শিল্প মন্ত্রণালয় সবার দৃষ্টি আকর্ষণ করছে।

এছাড়া সারাদেশে বিভিন্ন লবণ কোম্পানির ডিলার, পাইকারি ও খুচরা বিক্রেতাদের কাছে পর্যাপ্ত পরিমাণে লবণ মজুদ রয়েছে। পাশাপাশি চলতি নভেম্বর মাস থেকে লবণের উৎপাদন মৌসুম শুরু হয়েছে। এরইমধ্যে কক্সবাজার জেলার কুতুবদিয়া ও মহেশখালী উপজেলায় উৎপাদিত নতুন লবণও বাজারে আসতে শুরু করেছে। 

বাংলাদেশ সময়: ১৭৫৭ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৯, ২০১৯
জিসিজি/জেডএস

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-11-19 17:59:04