bangla news

ফতুল্লায় দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ১০, আটক ২

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১১-১৮ ৮:২২:৪৬ পিএম
ছবি- প্রতীকী

ছবি- প্রতীকী

নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ ও মুন্সীগঞ্জের সীমান্তবর্তী ফতুল্লায় প্রভাব বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে ১০ জন আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত দুইজনকে আটক করেছে পুলিশ।

সোমবার (১৮ নভেম্বর) বিকেলের দিকে ফতুল্লার আকবরনগর এলাকায় সামাদ আলী ও রহিম হাজি গ্রুপের মধ্যে এ ঘটনা ঘটে। তাৎক্ষণিকভাবে আহতদের নাম পরিচয় পাওয়া যায়নি। তাদের নারায়ণগঞ্জ ও মুন্সীগঞ্জের স্থানীয় হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। 

এলাকাবাসী জানায়, আকবরনগর এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে পৃথক দুটি বাহিনী তৈরি করে চাঁদাবাজি, মাদক ব্যবসা, ডাকাতিসহ বিভিন্ন অপরাধ কর্মকাণ্ড পরিচালনা করে আসছিলেন স্থানীয়ভাবে প্রভাবশালী সামাদ আলী ও রহিম হাজী। এলাকায় প্রভাব বিস্তার নিয়ে এর আগেও এ দুই গ্রুপের সংঘর্ষ হয়েছে। সে সব সংঘর্ষে বাড়িঘরে আগুন দেয়াসহ হতাহতের ঘটনাও ঘটে। তাদের কারণে এলাকার কয়েক হাজার মানুষ আতঙ্কে দিন কাটায়। সর্বশেষ গত বছরের ৯ আগস্ট দুই পক্ষের সংঘর্ষে টেটাবিদ্ধ হয়ে জয়নাল নামে এক ব্যক্তি নিহত হন। উভয় বাহিনীর বিরুদ্ধে প্রশাসনের কঠোর হস্তক্ষেপ কামনা করেছে এলাকাবাসী।

ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ফতুল্লা মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মিজানুর রহমান বাংলানিউজকে জানান, সোমবার প্রথমে স্থানীয় সামাদ আলীর লোকজন রহিম হাজিকে মারধর করে। এসময় রহিম হাজীর লোকজন খবর পেয়ে সামাদ আলীর বাড়ি ঘেরাও ও ভাঙচুরের চেষ্টা চালায়। এতে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বেশ কয়েকজন আহত হন। পরে পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে উভয় পক্ষকে শান্ত করে। এ ঘটনায় সামাদ আলীর স্ত্রী নাছিমা বেগম ও রহিম হাজিকে আটক করে থানায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিত শান্ত রয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ২০২১ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৮, ২০১৯
এমআরপি/এইচজে 

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   নারায়ণগঞ্জ
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-11-18 20:22:46