ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৯ আশ্বিন ১৪২৭, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৫ সফর ১৪৪২

জাতীয়

তিন শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে কিশোর আটক

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২২০৮ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৮, ২০১৯
তিন শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে কিশোর আটক

ব্রাহ্মণবাড়িয়া: ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সদর উপজেলার ঘাটিয়ারা গ্রামে পৃথক তিন পরিবারের তিন শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে ইমন (১৭) নামে এক কিশোরকে আটক করেছে পুলিশ।

সোমবার (১৮ নভেম্বর) বিকেল ৪টার দিকে ঘাটিয়ারা গ্রাম থেকে তাকে আটক করা হয়।  

এদিকে দুপুরে পরিবারের সদস্যরা ওই তিন শিশুর মেডিক্যাল পরীক্ষার জন্য জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করেছে।

ধর্ষণের শিকার তিন শিশু স্থানীয় একটি বিদ্যালয়ে পড়াশোনা করে।

শিশুদের পরিবারের সদস্যরা জানান, সদর উপজেলার বাসুদেব ইউনিয়নের ঘাটিয়ার পূর্ব পাড়ার শাহীন ভূঁইয়ার ছেলে ইমন ওই এলাকাতেই একটি বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণিতে পড়াশোনা করে।
গত রোববার (১৭ নভেম্বর) বিকেলে বাড়ির পাশে উঠানে কয়েকটি শিশু খেলা করছিল। এসময় তাদের মধ্য থেকে ৮ বছরের দুইটি শিশুকে ডেকে পাশের খলিল ভূঁইয়ার বাড়িতে নিয়ে যায় ইমন। পরে ওই দুই শিশুকে পর্যায়ক্রমে ধর্ষণ করে সে। এসময় শিশুদের এক সহপাঠী ওই ঘরে ডুকে ঘটনাটি দেখে স্থানীয়দের জানালে তারা ইমনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করে। জিজ্ঞাসাবাদে সে ধর্ষণের বিষয়টি স্বীকার করে। এ অবস্থায় স্থানীয় মাতবররা বিষয়টি ধামাচাপা দিতে আপস করার কথা বলেন।

এর আগে গত শুক্রবার (১৫ নভেম্বর) দুপুরে একই এলাকার ৯ বছরের এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে ইমনের বিরুদ্ধে।  

ওই শিশুর মা হাসপাতালে সাংবাদিকদের জানান, তার স্বামী প্রবাসে থাকেন। শুক্রবার দুপুরে বাড়িতে রান্না করছিলেন তিনি। এ সময় শিশুটিকে পাশের দোকানে পাঠালে এলাকার ইমন তাকে ফুসলিয়ে পাশের একটি বাড়িতে নিয়ে ধর্ষণ করে। পরে সে বাড়িতে এসে ঘটনাটি খুলে বলে।

জেলা সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক শওকত হোসেন জানান, শিশুদের ডাক্তারি পরীক্ষা চলছে। রিপোর্ট পেলে বিস্তারিত জানা যাবে আসলে কি হয়েছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) নারায়ণ চন্দ্র দাস জানান, এ ঘটনায় অভিযুক্ত ইমনকে আটক করা হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৭০৫ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৮, ২০১৯
আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa