bangla news

উন্নয়ন মেলায় বিষমুক্ত কৃষিপণ্যের পসরা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১১-১৪ ২:০৭:৩৯ পিএম
পিকেএসএফ উন্নয়ন মেলা-২০১৯ এ পণ্যের সমাহার। ছবি: জিএম মুজিবুর

পিকেএসএফ উন্নয়ন মেলা-২০১৯ এ পণ্যের সমাহার। ছবি: জিএম মুজিবুর

ঢাকা: কৃষক এনেছেন নিজ জমির উৎপাদিত বিভিন্ন পণ্য। প্রদর্শনীর পাশাপাশি চলছে বিক্রি। দর্শনার্থীরা ঘুরে ঘুরে দেখছেন এসব পণ্য। কেনার পাশাপাশি অনেকেই আবার দর-দামে ব্যস্ত। 

বৃহস্পতিবার (১৪ নভেম্বর) রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্র ঘুরে এসব চিত্র উঠে এসেছে।

এর আগে সাত দিনব্যাপী পিকেএসএফ উন্নয়ন মেলা-২০১৯ এর উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

মেলাপ্রাঙ্গণ ঘুরে দেখা যায়, নিত্য ব্যবহার্য পণ্য, প্রান্তিক ক্ষুদ্র উৎপাদকদের উৎপাদিত বিষমুক্ত কৃষিপণ্য, খাদ্যদ্রব্যসহ বিভিন্ন অঞ্চলের ঐতিহ্যবাহী ও সমাদৃত পণ্যের সমাহার।

প্রধানমন্ত্রী মেলা উদ্বোধনের পরপরই সবার জন্য মেলা উন্মুক্ত করা হয়। ততক্ষণে মেলাপ্রাঙ্গণের বাইরে দর্শনার্থীদের ভীড় শুরু হয়। মূল ফটক উদ্বোধনের পর লাইন ধরে মেলায় প্রবেশ করেন তারা। মেলায় নিত্য ব্যবহার্য বাহারি পণ্য মন কাড়ে তাদের। অনেকেই পছন্দের পণ্য কিনতে দর-দাম করেন।

মেলায় আগত দর্শনার্থী ফিরোজ মিয়া বাংলানিউজকে বলেন, মেলায় এক ছাদের নিচে নানা পণ্য দেখে ভালো লাগছে। বিষমুক্ত পণ্য এসেছে, কেনার আগ্রহ নিয়ে এখানে এসেছি। 

মেলায় পিকেএসএফের সহযোগী সংস্থা, বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান, গবেষণা ও তথ্যপ্রযুক্তি এবং সেবামূলক প্রতিষ্ঠানসহ মোট ১৩০টি প্রতিষ্ঠানের ১৯০টি স্টল স্থান পেয়েছে।

পল্লী কর্ম-সহায়ক ফাউন্ডেশনের (পিকেএসএফ) বিভিন্ন কার্যক্রমে অংশগ্রহণকারী প্রতিষ্ঠান এবং ব্যক্তিদের উৎপাদিত পণ্যপ্রদর্শনী ও বাজার সম্প্রসারণের লক্ষ্যে এ মেলার আয়োজন। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত মেলা চলবে।

পিকেএসএফ উন্নয়ন মেলায় প্রতিবারই প্রদর্শনীর পাশাপাশি থাকে উন্নয়ন বিষয়ে সেমিনার। এবারও পাঁচটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে প্রতিদিন একটি করে সেমিনারের আয়োজন করা হয়েছে। সেমিনারে সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী, এমপি, সচিব, নীতিনির্ধারক, প্রথিতযশা অর্থনীতিবিদ, উন্নয়নকর্মী, সমাজকর্মী, গবেষক, শিক্ষাবিদ ও সমাজের গণ্যমান্য ব্যক্তিরা অংশ নেবেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৪০৮ ঘন্টা, নভেম্বর ১৪, ২০১৯ 
ইএআর/এফএম

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2019-11-14 14:07:39