bangla news

বেনাপোলে রজনী ক্লিনিকে অবহেলায় নবজাতক মৃত্যুর অভিযোগ

উপজেলা করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১১-১৪ ৩:২২:২৩ এএম
নিহত নবজাতক

নিহত নবজাতক

বেনাপোল (যশোর): যশোরের বেনাপোলে রজনী ক্লিনিকের সিজার বাণিজ্যের কারণে এক নবজাতকের মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। নিহতের পরিবার ও এলাকাবাসী এ ঘটনায় প্রতিবাদ জানিয়ে ক্লিনিক বন্ধের দাবিতে  বিক্ষোভ করেছেন। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

বুধবার (১৩ নভেম্বর) দিনগত রাত ৮টায় সিজারের পরপরই অবহেলার কারণে এ নবজাতকের মৃত্যু হয়। নিহত নবজাতক বেনাপোল পৌরসভার নারায়ণপুর গ্রামের নাজমা বেগমের ছেলে।

নিহত নবজাতকের নানা আনোয়ার রহমান জানান, তার মেয়ের প্রসব বেদনা উঠলে বুধবার সকাল ৮টায় তিনি রজনী ক্লিনিকে ভর্তি করান। সেখানকার কর্মীরা আল্ট্রাসনোগ্রাফিসহ যাবতীয় পরীক্ষা করে জানান মা ও শিশু দুজনেই সুস্থ আছেন। তবে শিশু জন্ম দিতে হলে মায়ের সিজার করতে হবে। 

তিনি আরো বলেন, সিজারের জন্য সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত অপেক্ষায় থেকে অসুস্থ হয়ে পড়ে তার মেয়ে। এসময় তিনি যশোর নিতে চাইলে ক্লিনিকের তত্ত্বাবধানকারী সুইট শিশুটির নানা আনোয়ারকে আশ্বস্ত করে বলেন তাদের হাতে ভালো ডাক্তার আছে, বিকেলের মধ্যে চলে আসবে।  এ সময় পর্যন্ত অপেক্ষা করতে বলেন। কিন্তু ডাক্তার আসতে আসতে সন্ধ্যা গড়িয়ে যায়। আর সিজারে দেরি হওয়ায় নবজাতক মারা যায়। 

ঘটনা শুনে স্থানীয় সাংবাদিকসহ অন্যরা ক্লিনিকে হাজির হলে ক্লিনিকের লোকজন পালিয়ে যায়। ক্লিনিকের মালিক আমজাদ হোসেন প্রথমে গা ঢাকা দিলেও পরে পুলিশ এলে উপস্থিত হয়ে ঘটনার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেন।

এদিকে স্থানীয়রা জানান, কোনো নিময় নীতি না মেনে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে ক্লিনিক ব্যবসা করছে কর্তৃপক্ষ। এতে প্রায়ই ঘটছে ছোট বড় দুর্ঘটনা। এছাড়া যারা ক্লিনিকে পরীক্ষা-নিরীক্ষার কাজ করেন তাদের তেমন কোনো অভিজ্ঞতাও নেই। বিভিন্ন মহলকে ম্যানেজ করে তারা এ ব্যবসা চালাচ্ছে।

ক্লিনিকের ডাক্তার আসাদুজ্জামান বলেন, এ গর্ভবতী মায়ের ডায়াবেটিকস ছিল। এমন রোগীর সিজারে ঝুঁকি থাকে। তবে তিনি সন্ধ্যায় অপারেশন করবেন ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ তা জানতেন। এখানে তার কোনো দোষ নেই।

যশোরের নাভরণ সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার জুয়েল ইমরান বলেন, তিনি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। নিহত নবজাতকের পরিবার যদি অভিযোগ জানায় তবে এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বাংলাদেশ সময়: ০৩২০ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৪, ২০১৯
জেডএস

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-11-14 03:22:23