bangla news

‘সফলভাবে ঘূর্ণিঝড় বুলবুল মোকাবিলা করতে সক্ষম হয়েছি’

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১১-১১ ৩:১৮:৩৬ এএম
ঘূর্ণিঝড় কন্ট্রোল রুমে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে কথা বলছেন বরগুনা জেলা প্রশাসক(ডিসি)/ছবি: বাংলানিউজ

ঘূর্ণিঝড় কন্ট্রোল রুমে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে কথা বলছেন বরগুনা জেলা প্রশাসক(ডিসি)/ছবি: বাংলানিউজ

বরগুনা: জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের পাশাপাশি, পুলিশ, গণমাধ্যমকর্মী ও বিভিন্ন সেচ্ছাসেবী সংগঠনের সমন্বিত প্রচেষ্টায় দুর্যোগে বরগুনায় মারাত্মক কোনো ক্ষয়-ক্ষতি হয়নি। বরং সফলভাবে ঘূর্ণিঝড় "বুলবুল" মোকাবিলা করা সম্ভব হয়েছে। এমনটাই জানালেন বরগুনা জেলা প্রশাসক (ডিসি) মোস্তাইন বিল্লাহ।

রোববার (১০ নভেম্বর) রাত ৮টার দিকে ঘূর্ণিঝড় কন্ট্রোল রুমে বসে জেলা প্রশাসক(ডিসি) সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন। 

তিনি বলেন, বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় বুলবুল বরগুনায় আঘাত হানবে শুনেই বরগুনা জেলা ও উপজেলা প্রশাসন সাধারণ মানুষের জানমালের নিরাপত্তা দিতে প্রস্তুত ছিলো। 

তিনি বলেন, বৃষ্টিতে কৃষির ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে আমন ৯ হাজার ৮৬৩ হেক্টর, শীতকালীন শাকসবজি ৫শ’ ৫০ হেক্টর, গবাদি পশু নিহত ৩টি, আহত ৪১টি, ক্ষতিগ্রস্ত ঘরবাড়ি ৫ হাজার ২শ’ ৩৫টি,  ক্ষতিগ্রস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ৮৬টি, ক্ষতিগ্রস্ত বাঁধ ৩৮.৫ কিলোমিটার। মৎস্য বিভাগের সূত্র অনুযায়ী, ক্ষতিগ্রস্ত পুকুর ৬০টি, মৎস্য ঘের ৬৫টি, চিংড়ি ঘের ৩৫টি। 
 
তিনি আরো বলেন, জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে এখন পর্যন্ত ২৯৪ মেট্রিক টন চাল, ৭ লাখ টাকা, ৩৫০ প্যাকেট শুকনো খাবার ও ৫০টি কম্বল বরাদ্দ করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে আমরা ক্ষয়-ক্ষতি নির্ধারণ করেছি। পূর্ণাঙ্গ ক্ষয়ক্ষতির তালিকা প্রস্তুত করে মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়ে ক্ষতিগ্রস্থদের পুনর্বাসিত করা হবে। 

বাংলাদেশ সময়: ০৩১৮ ঘন্টা, নভেম্বর ১১, ২০১৯
এমএইচএম

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-11-11 03:18:36