bangla news

বুকে চাপা কষ্ট নিয়ে চলে গেছেন বাবা: ইসরাক

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১১-০৭ ১২:৪৬:১৫ পিএম
জানাজার আগে কথা বলছেন খোকার ছেলেসহ বিএনপির অন্য নেতারা

জানাজার আগে কথা বলছেন খোকার ছেলেসহ বিএনপির অন্য নেতারা

ঢাকা: আমার বাবা বুকে চাপা কষ্ট নিয়ে বিদায় নিয়েছেন। তিনি নিজদেশে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করতে পারেননি। তিনি ট্রাভেল ডকুমেন্ট নিয়ে এখানে এসেছেন। ২০১৭ সালে পাসপোর্ট নবায়ন আবেদন করে না পাওয়াটাই তার বড় কষ্ট।

বৃহস্পতিবার (৭ নভেম্বর) জাতীয় সংসদের দক্ষিণ প্লাজায় সাদেক হোসেন খোকার জানাজার আগে তার ছেলে ইঞ্জিনিয়ার ইসরাক হোসেন একথা বলেন।

তিনি বলেন, আমি যেদিন নিউইয়র্ক গেলাম সেদিন বাবা শেষ কথা বলেছেন। তিনি বলেছেন তার জানাজা যেন দেশে হয়। আমি সরকারকে ধন্যবাদ জানাই আমার বাবার মরদেহ দেশে আনতে সহযোগিতা করার জন্য। 

ইসরাক বলেন, বাবা আমাকে বলেছিলেন, আমি বাক্সবন্দি হয়ে দেশে যাবো। ঠিকই তিনি বাক্সবন্দি হয়ে এলেন। এটা আমি কখনও ভুলতে পারবো না।

প্রথমবারের মতো জাতীয় সংসদ এলাকায় পা রেখেছেন উল্লেখ করে ইসরাক হোসেন বলেন, প্রথমবার সংসদে পা রেখেছি আমার বাবার মরদেহ নিয়ে। যদিও আমার বাবা চারবার সংসদ সদস্য হয়ে এসেছিলেন। 

আরও পড়ুন>>>সংসদের দক্ষিণ প্লাজায় খোকার প্রথম জানাজা সম্পন্ন

তিনি বলেন, আমার বাবাকে আপনারা শ্রদ্ধা জানাতে এখানে এসেছেন তাই সবাইকে কৃতজ্ঞতা জানাই। আপনাদের এখানে উপস্থিতি প্রমাণ করে বাবার সবার সঙ্গে সুসম্পর্ক ছিল। আপনাদের ধন্যবাদ। 

সাদেক হোসেন খোকার দুই ছেলে ইসরাক হোসেন ও ইসফাক হোসেন সংসদ ভবনের জানাজায় উপস্থিত ছিলেন। বেলা সোয়া ১১ টায় জাতীয় সংসদ প্লাজায় তার জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

জানাজায় সাবেক রাষ্ট্রপতি বদরুদ্দোজা চৌধুরী, আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা তোফায়েল আহম্মেদ, বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী, সাবেক চিফ হুইপ আসম ফিরোজ, বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর সালেহ উদ্দিন, ওয়ার্কার্স পাটির সভাপতি রাশেদ খান মেমন, সাবেক স্বরাষ্ট্রপ্রতিমন্ত্রী শামসুল হক টুকু, সাবের হোসেন চৌধুরী, কল্যাণ পার্টির সৈয়দ মোহাম্মদ ইবরাহিম, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, অলি আহমদ, আবদুল মঈন খান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। 

জানাজা শেষে বিরোধীদলের পক্ষে জাপা মহাসচিব মশিউর রহমান রাঙ্গা শ্রদ্ধা জানান। এরপর কর্নেল অলি আহমদ, বিএনপির সংসদ সদস্যরা, উত্তরের মেয়র আতিকুল ইসলাম, বিএনপির ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদের নেতৃত্বে বিএনপির স্থায়ী কমিটি, ভাইস চেয়ারম্যান, উপদেষ্টারা শ্রদ্ধা জানান৷

ক্যানসারে আক্রান্ত খোকা নিউইয়র্কের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৪ নভেম্বর  মারা যান। ৭ নভেম্বর সকালে তার মরদেহ দেশে আনা হয়। ২০১৪ সাল থেকে চিকিৎসার জন্য তিনি নিউইয়র্কে ছিলেন।

চারবারের নির্বাচিত সংসদ সদস্য, দু’বারের মন্ত্রী ও ২০০২ সাল থেকে ২০১১ সাল পর্যন্ত অবিভক্ত ঢাকা সিটি করপোরেশনের মেয়র ছিলেন সাদেক হোসেন খোকা।

বাংলাদেশ সময়: ১২৪১ ঘণ্টা, নভেম্বর ০৭, ২০১৯
এমএইচ/এএ

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-11-07 12:46:15